kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১২ কার্তিক ১৪২৮। ২৮ অক্টোবর ২০২১। ২০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

স্বামী-সতীনের এসিডে ঝলসে গেল বিলাতফেরত পাতাশি

রাণীনগর (নওগাঁ) প্রতিনিধি    

১৬ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ১৬:১৪ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



স্বামী-সতীনের এসিডে ঝলসে গেল বিলাতফেরত পাতাশি

নওগাঁর রাণীনগরে সদ্য প্রবাসফেরত পাতাশি (৩৫) নামে এক গৃহবধূকে স্বামী ও তার প্রথম স্ত্রী মিলে এসিড নিক্ষেপ করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। আজ বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় উপজেলার মিরাট ইউনিয়নের আতাইকুলা মধ্যপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এসিড নিক্ষেপ করে স্বামী ওসমান ও তার প্রথম স্ত্রী নারগিছ পারভীন ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে গ্রামবাসী দুজনকে আটক করে রাণীনগর থানা পুলিশের নিকট সোপর্দ করেন। এসিডে ঝলসে যাওয়া ওই গৃহবধূকে রাণীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য নওগাঁ সদর হাসপাতালে পাঠান। এ ঘটনায় আরো দুই শিশুসহ তিনজন আহত হয়েছেন। আহতদের রাণীনগর হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। 

জানা গেছে, উপজেলার মিরাট ইউনিয়নের আতাইকুলা মধ্যপাড়া গ্রামের মজনু সরদারের মেয়ে সৌদি প্রবাসী পাতাশির (৩৫) সাথে গত প্রায় তিন বছর আগে আত্রাই উপজেলার আন্ধারকোটা গ্রামের করিম প্রামানিকের ছেলের বিয়ে হয়। কিছুদিন সংসার করার পর স্বামী প্রথম স্ত্রীর সাথে বনিবনা না হওয়ায় একপর্যায়ে দ্বিতীয় স্ত্রী পাতাশি বেগম সৌদি আরব চলে যান। তখন থেকে স্বামীর সাথে তার যোগাযোগ ঠিকঠাকই চলছিল। এমনকি স্বামীর নামে বেশকিছু টাকা পয়সাও পাঠান তিনি। গত প্রায় ১০ দিন আগে পাতাশি বেগম সৌদি আরব থেকে ছুটি নিয়ে তার বাবার বাড়ি রাণীনগর উপজেলার আতাইকুলা গ্রামে আসেন। এমন খবর পেয়ে স্বামী ওসমান গত মঙ্গলবার বিকেলে পাতাশির বাবার বাড়িতে যান। আজ বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় পূর্ব পরিকল্পনা মোতাবেক ওসমানের প্রথম স্ত্রী নারগিছ পারভীন আতাইকুলা গ্রামে পাতাশির বাবার বাড়িতে যান। সেখানে কথাবার্তার একপর্যায়ে নারগিছ তার ভ্যানিটি ব্যাগ থেকে এক লিটারের বোতলভর্তি এসিড পাতাশির মাথা, মুখ, হাত-পাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে নিক্ষেপ করেন। এসময় তার চিৎকারে প্রতিবেশীরা এগিয়ে আসলে এসিডে দুই শিশুসহ আরো তিনজন আহত হন। 

আহতরা হলেন ওই গ্রামের এন্তাজ সরদারের মেয়ে রিতা (১৩), সাগরের মেয়ে খাতিজা (৭) এবং আজিজুলের ছেলে আকাশ (৯)। তাদেরকে রাণীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে দৌড়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় গ্রামবাসীরা ওসমান ও তার বড় স্ত্রী নারগিছ পারভীনকে আটক করে রাণীনগর থানা পুলিশের নিকট সোপর্দ করেন।  

রাণীনগর থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) তারিকুল ইসলাম জানান, এসিড নিক্ষেপ ঘটনার সাথে জড়িত দুজনকে আট করে থানায় নেওয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে থানায় মামলার প্রক্রিয়া চলছে।  



সাতদিনের সেরা