kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৩ আশ্বিন ১৪২৮। ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১। ২০ সফর ১৪৪৩

লক্ষ্মীপুরে মেঘনার পাড় ভেঙে স্রোতে নিখোঁজ বৃদ্ধ

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি    

১২ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ১১:১৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



লক্ষ্মীপুরে মেঘনার পাড় ভেঙে স্রোতে নিখোঁজ বৃদ্ধ

লক্ষ্মীপুরের রামগতিতে ভাঙনকবলিত মেঘনা নদীর পাড়ে বসেছিলেন বৃদ্ধ আবদুল মালেক (৬৫) ও বশির আহম্মদ (৭৪)। হঠাৎ পাড় ভেঙে দু'জনই নদীতে পড়ে যান। তাৎক্ষণিক বৃদ্ধ বশির কূলে উঠে আসতে পারলেও স্রোতে হারিয়ে যান মালেক। আজ রবিবার (১২ সেপ্টেম্বর) ভোর পর্যন্ত তাকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। 

এর আগে শনিবার (১১ সেপ্টেম্বর) বিকেল ৪টার দিকে উপজেলার আলেকজান্ডার ইউনিয়নের জারিরদোনা মাছঘাটের পশ্চিমে আকস্মিক এ দুর্ঘটনা ঘটে। রাত ১০টা পর্যন্ত ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল নদীতে মালেককে উদ্ধারে চেষ্টা চালিয়েছেন। কিন্তু মেঘনার গভীর স্রোতে মালেককে খুঁজে পাওয়া যায়নি।

নিখোঁজ মালেক উপজেলার বালুরচর এলাকার সোনালী গ্রামের আলী হোসেনের ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, বৃদ্ধ মালেক ও বশির নদীর পাড়ে পসে গল্প করছিলেন। এলাকাটি ভাঙনকবলিত ছিল। হঠাৎ পাড় ভেঙে দু'জনই নদীতে পড়ে যান। তাৎক্ষণিক সাঁতরে বশির কূলে উঠে আসেন। কিন্তু স্রোতের সঙ্গে হারিয়ে যান মালেক। এর পর থেকে স্থানীয়রা চেষ্টা চালিয়েছেন তাকে খুঁজে পেতে। পরে উপজেলা ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরিদল এসে প্রায় ৬ ঘন্টা চেষ্টা চালিয়েও তাকে খুঁজে পায়নি।

আজ রবিবার ভোরে রামগতি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ সোলাইমান বলেন, ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল প্রায় ৬ ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়েও মালেকের খোঁজ পাননি৷ ভোর পর্যন্ত তার কোনো সন্ধান পাওয়া যায়নি। তাকে উদ্ধারে আবারো চেষ্টা চালানো হবে। 

প্রসঙ্গত, রামগতি-কমলনগরের মেঘনার তীরবর্তী বাসিন্দারা প্রতিদিন সকাল-বিকেল এভাবেই নদীর পাড়ে বসে গল্প করতে দেখা যায়। সর্বনাশা মেঘনার ভাঙনে গত তিন যুগ এ দু'উপজেলার বহু ঘর-বাড়িসহ সরকারি-বেসরকারি স্থাপনা বিলীন হয়ে গেছে। এবার সেই ভাঙনে বৃদ্ধ মালেক নিখোঁজ হলেন।



সাতদিনের সেরা