kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১২ কার্তিক ১৪২৮। ২৮ অক্টোবর ২০২১। ২০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

পেটের পীড়া নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি নারী, শৌচাগারে মিলল ঝুলন্ত লাশ

আলমডাঙ্গা (চুয়াডাঙ্গা) প্রতিনিধি   

১১ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ১৪:৩৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পেটের পীড়া নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি নারী, শৌচাগারে মিলল ঝুলন্ত লাশ

চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের শৌচাগার থেকে মালেকা খাতুন (৬০) নামের এক নারীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। আজ শনিবার বেলা ১১টার দিকে আলমডাঙ্গা থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে মরদেহ উদ্ধার করে।

মালেকা খাতুন আলমডাঙ্গা উপজেলায় হারদী ইউনিয়নের কুয়াতলা গ্রামের গোলাম রসুলের স্ত্রী। তিনি দুই সন্তানের জননী।

আলমডাঙ্গা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. হাদী জিয়া উদ্দিন আহমেদ সাঈদ বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ৮ সেপ্টেম্বর পেটের পীড়া নিয়ে আলমডাঙ্গা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মহিলা ওয়ার্ডে ভর্তি হন মালেকা খাতুন। এ ছাড়া তিনি মানসিক জটিলতাসহ দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন রোগে ভুগছিলেন।

জানা যায়, রাতে তার সঙ্গে কোনো স্বজন বা পরিবারের সদস্যরা থাকতেন না। শুক্রবার রাত সাড়ে ১১টার পর শৌচাগারে যান মালেকা খাতুন। সকালে এক নারী শৌচাগারে গিয়ে মালেকা খাতুনের ঝুলন্ত মরদেহ দেখতে পেয়ে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে জানান। পরে আলমডাঙ্গা থানা পুলিশকে জানালে মরদেহ উদ্ধার করে।

আলমডাঙ্গা থানার ওসি আলমগীর কবীর কালের কণ্ঠকে বলেন, প্রাথমিক তদন্ত শেষে জানা যায় যে মালেকা খাতুন দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ ছিলেন। গতকাল শুক্রবার দিনগত রাতে শৌচাগারের জানালায় ওড়না দিয়ে তিনি আত্মহত্যা করে থাকতে পারেন। মরদেহ সুরতহাল প্রতিবেদন সম্পন্ন হয়েছে। পরিবারের সদস্যরা আবেদন করলে ময়নাতদন্ত ছাড়াই মরদেহ হস্তান্তর করা হবে।



সাতদিনের সেরা