kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১২ কার্তিক ১৪২৮। ২৮ অক্টোবর ২০২১। ২০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

রক্তমাখা ছোট্ট দেহে ধর্ষণের আলামত, মারা গেল ৭ বছরের সুবর্ণা

নড়াইল প্রতিনিধি   

৩ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ১৬:১৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রক্তমাখা ছোট্ট দেহে ধর্ষণের আলামত, মারা গেল ৭ বছরের সুবর্ণা

নড়াইলে মামা বাড়িতে বেড়াতে গিয়ে ধর্ষণের শিকার হয়ে সুবর্ণা (৭) নামে এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এমন অভিযোগে পুলিশ জিজ্ঞাশাবাদের জন্য শিশুটির মামা ও মামিকে আটক করেছে। আজ শুক্রবার (৩ সেপ্টেম্বর) সকালে নড়াইল পৌরসভার ভওয়াখালী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ওই এলাকায় ভাড়া বাসা থেকে তাদের আটক করা হয়। দুই দিন আগে শিশুটি ঢাকায় মায়ের কাছ থেকে মামা বাড়িতে বেড়াতে যায়।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শিশুটি মা ঝর্না বেগম ও সৎ বাবা সিরাজুল ইসলামের সাথে ঢাকার মিরপুর এলাকায় থাকতো। সুবর্ণা সম্প্রতি ঢাকা থেকে বেড়াতে যায় নড়াইল পৌরসভার ভওয়াখালী এলাকার মামা হাফিজুর রহমানের ভাড়া বাড়িতে। শিশুটির মামা হাফিজুর রহমান একটি ওষুধ কম্পানির গবাদী পশুর ওষুধ সরবরাহকারী।

আজ শুক্রবার সকাল ৬টার দিকে মারাত্মক অসুস্থ অবস্থায় শিশু সুবর্ণাকে জরুরি বিভাগে নিয়ে যান তার স্বজনরা। এসময় শিশুটির মৃত্যু ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা। জরুরি বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত শিশুটির যৌনাঙ্গ ও শরীরের বিভিন্ন স্থান থেকে রক্তক্ষরণ দেখে সন্দেহ হলে পুলিশকে অবহিত করেন।

নড়াইল সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকৎসক ডা. হাফিজুর রহমান মুক্ত বলেন, শিশুটির যৌনাঙ্গে ধর্ষণের আলামত রয়েছে। এটা সন্দেহ হওয়াায় আইনগত ব্যবস্থা নেবার জন্য পুলিশকে অবগত করা হয়েছে। তবে পরীক্ষার পরে বিষয়টি পরিষ্কার হবে। 

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শওকত কবির বলেন, মৃতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। ময়নাতদন্তে প্রতিবেদন পাওয়ার পর সঠিক কারণ জানা যাবে। শিশুটির বাবা-মা ঢাকা থেকে আসলে আইনগত ব্যবস্থা নিতে সুবিধা হবে। নিহতের মামা হাফিজুর রহমান ও মামি তানিয়া খানমকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় আনা হয়েছে।



সাতদিনের সেরা