kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১ আশ্বিন ১৪২৮। ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১।৮ সফর ১৪৪৩

‘ফেরি দুর্ঘটনা রোধে নাবিকদের আরো দক্ষ হতে হবে’

আঞ্চলিক প্রতিনিধি, মানিকগঞ্জ   

২ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ১৮:২৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



‘ফেরি দুর্ঘটনা রোধে নাবিকদের আরো দক্ষ হতে হবে’

ফেরি দুর্ঘটনা রোধে নাবিকদের আরো দক্ষ হতে হবে। ফেরি চালানোর সময় কোনো ভিআইপি এমনকি স্ত্রী-সন্তানদের সঙ্গে কথা বলা যাবে না। এতে মনোযোগ নষ্ট হলে দুর্ঘটনার আশঙ্কা থাকে বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ পরিবহন সংস্থার (বিআইডব্লিউটিসি) চেয়ারম্যান সৈয়দ মো. তাজুল ইসলাম। 

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে মানিকগঞ্জের পাটুরিয়া ঘাটের পদ্মা রিভার ভিউ হোটেলের হল রুমে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌ-রুটের চলাচলকারী ফেরির নাবিকদের দক্ষতা ও সচেতনতা বৃদ্ধি শীর্ষক কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। 

কর্মশালায় নাবিকদের উদ্দেশ্যে বিআইডব্লিউটিসির চেয়ারম্যান আরো বলেন, সাম্প্রতিক সময়ে বার বার পদ্মা সেতুর পিলারে কয়েকটি ফেরি ধাক্কা লাগার ঘটনায় সারা দেশে সমোলচনার ঝড় ওঠে। নাবিকরা আরো দক্ষ হলে এরকম ঘটনা ঘটত না। তাই সব ফেরির নাবিক, সুকানি, ইঞ্জিন মাস্টারকে নিয়ম-নীতি মেনে চলতে হবে। নদীতে স্রোতের গতি আর ফেরির গতির বিষয়ে খেয়াল রেখে চলতে হবে। এছাড়া রাত জেগে বা অন্য মনস্ক হয়ে ফেরি চালানো যাবে না বলেও তিনি বলেন। এসময় কর্মশালায় ফেরির নাবিক, সুকানি ও ইঞ্জিন মাস্টারসহ মোট ২৪ জন প্রশিক্ষণে অংশ গ্রহণ করেন।

নাবিকদের এক প্রশ্নের জবাবে প্রশিক্ষকরা বলেন, বর্তমানে সবগুলো ফেরিতে নৌরুটে দুর্ঘটনা এড়াতে ফেরিতে ভিটিএস সংযোজন করা হয়েছে। এতে করে নদীর স্রোত ও ঢুবচর বিষয়ে নাবিকরা অবগত হতে পারবে। যোগাযোগ ব্যবস্থার মধ্যে নদী পথ সবচেয়ে কম খরচ ও নিরাপদ উল্লেখ্য করে প্রশিক্ষকরা আরো বলেন, চালকের আসন, ইঞ্জিন রুমসহ সব জায়গায় পরিষ্কার-পরিছন্ন রাখতে হবে।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন করপোরেশন আয়োজিত এ কর্মশালায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- মানিকগঞ্জ জেলা প্রশাসক মুহাম্মদ আব্দুল লতিফ, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ গোলাম আজাদ খান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শিবালয় সার্কেল তানিয়া সুলতানা, থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. ফিরোজ কবির, ফেরি সংস্থার পরিচালক মো. শাহিনুর ভূঁইয়া, মো. আশিকুজ্জামান, মহাব্যবস্থাপক ক্যাপ্টেন মুহা. হাশেমুর রহামান, নৌ পরিবহন অধিদপ্তর পরিক্ষক ক্যাপ্টেন কাজী মো. আহসান, আরিচা সেক্টর ডিজিএম মো. জিল্লুর রহমান প্রমুখ।



সাতদিনের সেরা