kalerkantho

রবিবার । ৪ আশ্বিন ১৪২৮। ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১১ সফর ১৪৪৩

১১৫০ টাকার জন্য...

বোয়ালমারী-আলফাডাঙ্গা (ফরিদপুর) প্রতিনিধি   

২৯ আগস্ট, ২০২১ ১৭:৩৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



১১৫০ টাকার জন্য...

ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলায় এক হাজার ১৫০ টাকার জন্য মো. লিটন মিয়া (৩৭) ও তার স্ত্রীসহ (২৫) পরিবারের ওপর নির্যাতন চালানোর অভিযোগ ওঠেছে তার ছোট ভাইয়ের বিরুদ্ধে। এর প্রতিবাদে রবিবার দুপুরে বড় মো. লিটন মিয়া বোয়ালমারী পৌরসদরের বিলাসী শপিং কমপ্লেক্স সংলগ্ন নিজ বাড়িতে সংবাদ সম্মেলন করেছেন।

সংবাদ সম্মেলনে মো. লিটন মিয়া লিখিত বক্তব্য পাঠ করে বলেন, ‘বাবার ওয়ারিশ হিসেবে পৈতৃক বাড়িতে বিল্ডিং নির্মাণ কাজ চলছে। ছোট ভাই পলাশের (৩০) সঙ্গে মিলেমিশে কিছু ইট ক্রয় করি। পলাশের কাছে আমি ইট ও মিস্ত্রি কাজের বাবদ ১১৫০ টাকা পাই। ওই টাকা তার কাছে চাইতে গেলে সে ক্ষিপ্ত হয়ে বাঁশের লাটি নিয়ে আমার বাসার মধ্যে ঢুকে আমাকে ও আমার স্ত্রীকে মারধর করে আহত করে। আমার স্ত্রী ইয়াসমিনের চুলের মুঠি ধরে মাটিতে ফেলে কিলঘুষি ও পা দিয়ে আঘাত করে মারাত্মক আহত করে। এ সময় আমার স্ত্রীর গলায় থাকা এক ভরি ওজনের স্বর্ণের চেইন ছিনিয়ে নিয়ে যায়। আমাদের মারধর করার সময় আশপাশের লোকজন ছুটে আসলে পলাশ হুমকি দিয়ে চলে যায়।' 

তিনি আরো বলেন, 'এ ঘটনায় আমি বাদী হয়ে ঘটনার পর কাইয়ুমুজ্জামান পলাশের বিরুদ্ধে বোয়ালমারী থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেছি।'

বোয়ালমারী থানায় লিখিত অভিযোগ পাওয়ার কথা স্বীকার করে থানার উপপরিদর্শক মামুন অর রশিদ বলেন, তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।



সাতদিনের সেরা