kalerkantho

রবিবার । ৪ আশ্বিন ১৪২৮। ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১১ সফর ১৪৪৩

তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় নিশ্চিত হলো লাশটি মাহতাবের

চাঁদপুর প্রতিনিধি   

২৯ আগস্ট, ২০২১ ০১:৫৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় নিশ্চিত হলো লাশটি মাহতাবের

চলন্ত ট্রেনের নিচে কাটা পড়া ক্ষতবিক্ষত লাশ! অজ্ঞাত পরিচয়ে পড়েছিল দীর্ঘ কয়েক ঘণ্টা। ঘটনার পর রেললাইনের আশপাশের অনেকেই ছুটে আসেন।

মর্মান্তিক দুর্ঘটনার শিকার ক্ষতবিক্ষত হতভাগ্য সেই ব্যক্তির লাশ বিকৃত হয়ে গেছে। কিন্তু কেউই তা শনাক্ত করতে পারেনি। এমনকি জিআরপি পুলিশ কয়েক ঘণ্টার চেষ্টায়ও লাশটির কোনো কিনারা করতে পারেনি।

অবশেষে ডাক পড়ল পুলিশ ব্যুরো ইনভেস্টিগেশন-পিবিআই'র। শেষ পর্যন্ত তারাই অজ্ঞাত পরিচয় এই ব্যক্তির লাশের পরিচয় নিশ্চিত করল।

আলোচিত এমন ঘটনা ঘটেছে শনিবার (২৮ আগস্ট) দুপুরে চাঁদপুর জিআরপি থানায়। এর আগে গত শুক্রবার মধ্যরাতে চাঁদপুর-লাকসাম রেলপথের মুন্সিবাড়ি এলাকায় আন্তঃনগর মেঘনা ট্রেনের নিচে কাটা পড়েন এই ব্যক্তি।

পিবিআই, চাঁদপুর জোনের পুলিশ পরিদর্শক আতিকুর রহমান জানান, ক্ষতবিক্ষত লাশের আঙুলের চাপ সংগ্রহ করে মাত্র কয়েক ঘণ্টার মধ্যে পরিচয় শনাক্ত করেছি। এই জন্য বিশেষ তথ্য প্রযুক্তির সহায়তা নেওয়া হয়েছে। 

তিনি আরো জানান, এরপরই নিশ্চিত হওয়া যায় যে, মৃত ব্যক্তি হচ্ছেন, মাহতাবউদ্দিন খান (৩৮)। তার বাড়ি চাঁদপুর পৌরসভার বিষ্ণুদী এলাকায়। বাবার নাম নূর হোসেন খান। 

পিবিআই এবং জিআরপি পুলিশ যৌথভাবে খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন, পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে ঝগড়ার জের ধরে চলন্ত ট্রেনের নিচে ঝাঁপিয়ে পড়ে আত্মহত্যা করেন মাহতাবউদ্দিন খান। 

এদিকে, চাঁদপুর জিআরপি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মুরাদ উল্লাহ জানান, ট্রেনের নিচে কাটা পড়ে একজনের মৃত্যুর ঘটনায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে। 

অন্যদিকে, শনিবার বিকেলে চাঁদপুর ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে ময়নাতদন্ত শেষে মাহতাবউদ্দিন খানের লাশ পরিবারের সদস্যদের কাছে হস্তান্তর করেছে জিআরপি থানা পুলিশ। 



সাতদিনের সেরা