kalerkantho

শুক্রবার । ৯ আশ্বিন ১৪২৮। ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১৬ সফর ১৪৪৩

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নৌ-পথে তেতে উঠল দুই পক্ষ!

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি    

২৩ আগস্ট, ২০২১ ১৬:২৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নৌ-পথে তেতে উঠল দুই পক্ষ!

ভরাবর্ষায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলার পাকশিমুল ইউনিয়নের বেশির ভাগ সড়ক পানিতে তলিয়ে থাকে। নৌ-পথই হয়ে ওঠে চলাচলের মাধ্যম। আর সেই নৌপথে চলতে গিয়ে দুই নৌকায় থাকা দুই পক্ষের লোকজন একে অপরকে দেখে তেতে ওঠে। তবে পুলিশ আসার খবর পেয়ে উভয় পক্ষ সটকে পড়ায় আর সংঘর্ষে রূপ নেয়নি।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে শুক্রবার সন্ধ্যায় দুদল যুবকের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এ ঘটনার জের ধরে পর দিন শনিবার বেলা ১১টার দিকে ইউনিয়নের পরমানন্দপুর এবং ফতেপুর গ্রামবাসীর মধ্যে নৌ-পথে উত্তেজনা ছড়িয়ে পরে। এ সময় দুই পক্ষের লোকজন একে অপরকে উদ্দেশ্য করে ঢিল ছুড়ে মারে। তবে এ ঘটনায় কেউ হতাহতের কোনো খবর পাওয়া যায়নি। মঙ্গলবার এ নিয়ে গ্রাম্য সালিস অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।

পুলিশ ও গ্রামবাসী জানায়, গত শুক্রবার সন্ধ্যায় পাকশিমুল খেলার মাঠে পরমানন্দপুর গ্রামের যুবকদের সঙ্গে ফতেপুর গ্রামের যুবকদের ফুটবল খেলা অনুষ্ঠিত হয়। এ ফুটবল খেলা নিয়ে দুদল যুবকের মধ্যে প্রথমে কথাকাটাকাটি হয়। পরে তাদের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার জের ধরে পর দিন শনিবার বেলা ১১টার দিকে হাওরবেষ্টিত পরমানন্দপুর এবং ফতেপুর গ্রামবাসীর হাওরের মাঝখানে একাধিক নৌকায় থাকা এক পক্ষ আরেক পক্ষকে গালাগাল করতে শুরু করে। একপর্যায়ে উভয় পক্ষের লোকজন নৌ-পথে একে অপরকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল ছোড়েন। এ নিয়ে উত্তেজনা ছড়িয়ে পরে। 

পাকশিমুল ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. সাইফুল ইসলাম জানান, ফুটবল খেলা নিয়ে দুই গ্রামের যুবকদের মধ্যে গত শুক্রবার সন্ধ্যায় মারামারি হয়। পর দিন দুই গ্রামের লোকজন থাকা পৃথক নৌকায় হইচই হয়। তবে এলাকার পরিস্থিতি এখন শান্ত আছে। বিষয়টি মীমাংসা করতে সভা ডাকা হয়েছে।

সরাইল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. কবির হোসেন জানান, কোনো সংঘর্ষ হওয়ার আগেই দুই পক্ষ নৌকা নিয়ে চলে যায়। এ নিয়ে এলাকায় এখন আর কোনো উত্তেজনা নেই। বিষয়টি স্থানীয়ভাবে মীমাংসা হবে বলে জানতে পেরেছি।



সাতদিনের সেরা