kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৩ আশ্বিন ১৪২৮। ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১। ২০ সফর ১৪৪৩

নেশা করে মাতলামি, আওয়ামী লীগ নেতাকে মারধর

সরিষাবাড়ী (জামালপুর) প্রতিনিধি   

১৬ আগস্ট, ২০২১ ১৯:১০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নেশা করে মাতলামি, আওয়ামী লীগ নেতাকে মারধর

জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে নেশা করে মাতলামি করায় ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতিকে মারধরের ঘটনা ঘটেছে। গতকাল রবিবার রাতে সাতপোয়া ইউনিয়নের দাশেরবাড়ী গামারতলা খেয়াঘাট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, উপজেলার সাতপোয়া ইউনিয়নের ৩নম্বর ওয়ার্ডের আওয়ামী লীগের সভাপতি আলমাছ উদ্দিন ভুটু। রবিবার রাত ৮টার দিকে আরামনগর বাজার সুইপার কলোনি থেকে মদ্যপান অবস্থায় বাড়িতে ফিরছিলেন। পথে দাশেরবাড়ী গামারতলা খেয়া ঘাটে চায়ের দোকানে ঢুকে হেলাল উদ্দিন নামে স্থানীয় ব্যক্তিকে বকাবকি ও মাতলামি করতে থাকেন। এ নিয়ে দুজনের মধ্যে কথা কাটাকাটি শুরু হয়। এ পর্যায়ে হেলাল মিয়াকে ধাক্কা দিলে তার হাতে থাকা চায়ের কাপ দিয়ে আলমাছ উদ্দিনের মুখে ও মাথায় আঘাত করলে তিনি গুরুতর আহত হন। রাতেই স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়।

আহত আলমাছ উদ্দিনের ভাতিজা বাবর আলী অভিযোগ করে বলেন, তুচ্ছ ঘটনায় আলমাছ উদ্দিনকে মারধর করা হয়েছে। চাচা কথা বলতে পারছে না, সুস্থ হলেই মামলা করা হবে।

হেলাল মিয়া বলেন, তাকে মারধর করা হয়নি।

সাতপোয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জয়নাল আবেদীন সোমবার দুপুরে জানান, আলমাছ উদ্দিন ভুটু মাঝে মধ্যেই নেশা করে মাতলামি করেন। ইতিপূর্বেও মাতলামির কারণে তার পরিবার তাকে পুলিশে দিয়েছিল। নেশা করে মাতলামি করায় মারধরের ঘটনা ঘটে থাকলে তার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে তিনি জানান।

সরিষাবাড়ী থানার ওসি মীর রকিবুল হক কালের কণ্ঠকে বলেন, দাশেরবাড়ী গামারতলার মারামারি ঘটনায় এখনো কেউ অভিযোগ দেয়নি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।



সাতদিনের সেরা