kalerkantho

শুক্রবার । ৯ আশ্বিন ১৪২৮। ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১৬ সফর ১৪৪৩

ষাটোর্ধ্ব নসিমন,আনোয়ারাদের মুখে হাসি ফোটালো বিজিবি

মাহাবুর রহমান,বিরামপুর.   

১৬ আগস্ট, ২০২১ ১২:৪৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ষাটোর্ধ্ব নসিমন,আনোয়ারাদের মুখে হাসি ফোটালো বিজিবি

বয়সের ভারে নুয়েপড়া ষার্টোধ্ব নসিমন বেওয়া। স্বামীকে হারিয়েছেন ১০বছর আগে। চোখে মুখে হতাশার ছাপ। নুন আনতে পান্তাফুরার  ছেলের  সংসার চলে অনেকটা অনটনের মধ্যদিয়েই। জাতীয় শোক দিবসে সেই বৃদ্ধার হাতে বর্ডার গার্ড বংলাদেশ (বিজিবি’র) ২০ ব্যাটালিয়নের ঘাসুড়িয়া ক্যাম্পের সদস্যরা তুলে দেন চাল, ডাল, চিনি, লবণ, তেল, আলুসহ নানা খাদ্যসামগ্রী। খাদ্যসামগ্রী পেয়ে মনের অজান্তেই চোখদিয়ে ঝরে আনন্দের অশ্রু। নসিমন বেওয়া বলেন,‘ এ্যালা খাবার হলেই অনেক কদিন চলে যাবে। মানুষগুলাক আল্লাহ ভালো রাখুক।'

দুপুর প্রায় ১২ টা। ভাইগড় ক্যাম্পের সামনে হাজির আনোয়ার বেওয়া (৭৫)। স্বামী হাজের আলীর মৃত্যুর পর ছেলের সংসারেই থাকেন তিনি। লাঠিতে ভরদিয়ে এসেছেন বিজিবি’র খাদ্যসামগ্রী নিতে। জানতে চাইলে আনোয়ারা বেগম বলেন,‘হারাগরিব মানুষ,ছেলের অভাবের সংসারোত মুই বোঝা হয়ে গেছু।চেয়ারম্যান মেম্বার মোর খোঁজ নেয়না। ওমরা(বিজিবি)গিয়ে মোক একটা সিলিপ দিয়ে খাবার নিবা আসপা(আসতে) কইছিল। আল্লাহ ওমাক(বিজিবি) ভালো রাখুক।

বৃদ্ধা নসিমন বেওয়া বাড়ি দিনাজপুরের বিরামপুর উপজেলার ঘাসুড়িয়া গ্রামে আর আনোয়ারা বেওয়ার বাড়ি জোবানি ইউনিয়নের ভাইগড় গ্রামের পশ্চিম পাড়ায়।
শুধু নসিমন বেওয়া আর আনোয়ার নয় তাঁদের মতো ১০০জন অসহায় ও দুস্থ্যমানুষের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেছেন দিনাজপুরের বিরমপুর সীমান্তে বর্ডারগার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) ২০ ব্যাটালিয়নের সদস্যরা।
রোববার দুপুরে উপজেলার ভাইগড় ও ঘাসুড়িয়াসহ বেশ কয়েকটি ক্যাম্পে এই কর্মসূচী পালন করেছেন বিজিবি’র ২০ ব্যাটালিয়নের সদস্যরা। খাদ্যসামগ্রীর মধ্যে রয়েছে চাল,ডাল,তেল,লবণ,আলু,সাবান।

জানতে চাইলে ভাইগড় কোম্পানি কমান্ডার সুবেদার মোজাম্মেল হক বলেন,‘২০ ব্যাটালিয়নের অধিনায়কের নির্দেশে আমরা অসহায় ও দুস্থ্যদের মাঝে শোক দিবসে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করছি। অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়াতে পেরে নিজেকে ভালো লাগছে।
জানতে চাইলে ২০ ব্যাটালিয়নের অধিনায় লেঃ কর্ণেল রফিকুল ইসলাম মুঠফোনে বলেন,‘আজ একটি শোকের দিন.এই দিনে অসহায় ও দুস্থদের পাশে দাঁড়াতে পেরে নিজেকে ভালো লাগছে।আমাদের সামর্থ্য অনুযায়ী  সমাজের পিছিয়ে পড়া মানুষগুলোকে চাল,ডাল,চিনি,তেল,লবণ,আলুসহ নিত্রপ্রয়োজনীয় খাদ্যসমগ্রী বিতরণ করেছি। বিজিবি শুধু চোরচালান নয়,অনেক মানবিক কাজও করেন।



সাতদিনের সেরা