kalerkantho

বুধবার । ১১ কার্তিক ১৪২৮। ২৭ অক্টোবর ২০২১। ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

বেনাপোল দিয়ে ভারত থেকে এলো ১৭৮ মেট্রিক টন কাঁচা মরিচ

বেনাপোল প্রতিনিধি   

১৪ আগস্ট, ২০২১ ১৯:১৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বেনাপোল দিয়ে ভারত থেকে এলো ১৭৮ মেট্রিক টন কাঁচা মরিচ

দীর্ঘ এক বছর পর বেনাপোল স্থলবন্দর দিয়ে ভারত থেকে কাঁচা মরিচ আমদানি শুরু হয়েছে। গত পাঁচ দিনে এ বন্দর দিয়ে ১৭৮ মেট্রিক টন কাঁচা মরিচ বাংলাদেশে এসেছে। আজ শনিবার (১৪ আগস্ট) বিকালে ৩৭ মেট্রিক টন কাঁচা মরিচ ভারত থেকে আমদানি করা হয়েছে। এ নিয়ে গত পাঁচ দিনে ভারত থেকে আমদানি করা হয়েছে ১৭৮ মেট্রিক টন নিত্যপ্রয়োজনীয় এ পণ্যটি।

গত ৯ আগস্ট ১২ মেট্রিক টন কাঁচা মরিচ আমদানির মাধ্যমে শুরু হয় মরিচ আমদানি। ১০ আগস্ট আসে ৪৫ মেট্রিক টন। ১১ ও ১২ আগস্ট আমদানি করা হয় ২৪ ও ৬০ মেট্রিক টন। শনিবার আসে ৩৭ মেট্রিক টন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে বেনাপোল চেকপোস্ট কার্গো শাখার রাজস্ব কর্মকর্তা সাইফুর রহমান মামুন জানান, দেশের বাজারে কাঁচা মরিচের দাম বেড়ে যাওয়ায় সরকার পণ্যটি আমদানির অনুমতি দিয়েছে। ফলে গত ৯ আগস্ট থেকে ভারত থেকে কাঁচা মরিচ আমদানি শুরু হয়েছে। উচ্চ পচনশীল হওয়ায় মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের আমদানি করা পণ্যটি দ্রুত খালাসের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। মেসার্স রুশাত এন্টারপ্রাইজ, মেসার্স জুবায়ের  এন্টারপ্রাইজ, মেসার্স গাজী এমপেক্স ও মেসার্স উৎস এন্টারপ্রাইজ নামে এই চার আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান এসব কাঁচা মরিচ আমদানি করেছেন।

বেনাপোল সিঅ্যান্ডএফ এজেন্টস স্টাফ অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক সাজেদুর রহমান জানান, দেশের বাজারে দাম বাড়ায় ও সংকটের কারণে ব্যবসায়ীরা কাঁচা মরিচ আমদানি শুরু করেছে। এ বন্দর দিয়ে চারটি আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান পণ্যটি আমদানি করছে। কাঁচা মরিচ আমদানির ফলে দেশের বাজারে পণ্যটির দাম কমবে বলে তিনি জানান।

প্রসঙ্গত, বৃষ্টি এবং বৃষ্টির কারণে নীচু জমি পানিতে তলিয়ে যাবার কারণে দেশের বাজারে চার থেকে পাঁচ গুণ বেশি দামে বিক্রি হচ্ছে কাঁচামরিচ। দেশের বাজারে কাঁচামরিচের সরবরাহ ও মূল্য স্বাভাবিক রাখতে ভারত থেকে আমদানির উদ্যোগ নেয় বাণিজ্য মন্ত্রণালয়।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের মধ্যস্থতায় ইতিমধ্যে আমদানিকারকদের অনুকূলে প্রয়োজনীয় আমদানি পারমিট (আইপি) ইস্যু করা হয়েছে। দেশের বেনাপোল, ভোমরা, সোনামসজিদ, হিলি স্থলবন্দর দিয়ে এসকল কাঁচা মরিচ আমদানি হচ্ছে বলেও সরকারি তথ্য বিবরণীতে জানানো হয়।



সাতদিনের সেরা