kalerkantho

শুক্রবার । ৯ আশ্বিন ১৪২৮। ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১৬ সফর ১৪৪৩

ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে গ্রাম পুলিশের সংবাদ সম্মেলন

হাজীগঞ্জ (চাঁদপুর) প্রতিনিধি    

১১ আগস্ট, ২০২১ ১২:৪১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে গ্রাম পুলিশের সংবাদ সম্মেলন

হাজীগঞ্জের বড়কুল পূর্ব ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে সংবাদ সন্মেলনে বক্তব্য দিচ্ছেন গ্রাম পুলিশ সদস্য স্বপন সাহা। ছবি: কালের কণ্ঠ

ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ কবির হোসেন মিয়াজীর বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগসহ সংবাদ সম্মেলন করেছেন একই পরিষদের গ্রাম পুলিশ স্বপন সাহা।

ঘটনাটি চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ উপজেলার ৬ নম্বর বড়কূল পূর্ব ইউনিয়নে। স্বপন সাহা ওই ইউনিয়নের দক্ষিণ রায়চোঁ গ্রামের মৃত নারায়ণ সাহার ছেলে।

গতকাল মঙ্গলবার (১০ আগস্ট) রাতে হাজীগঞ্জ বাজারে অবস্থিত একজন আইনজীবীর চেম্বারে এই সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ পড়ে শোনান স্বপন সাহা। এতে সভাপতিত্ব করেন হাজীগঞ্জ প্রেস ক্লাব সভাপতি মহিউদ্দিন আল আজাদ।

আলহাজ কবির হোসেন মিয়াজীর বিরুদ্ধে মৌখিক অভিযোগ এনে স্বপন সাহা বলেন, গত শনিবার (৭ আগস্ট) ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে করোনা টিকার জন্য  নিবন্ধনকে কেন্দ্র করে স্থানীয় সংসদ সদস্যকে নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য ও উপজেলা উন্নয়ন সমন্বয় কমিটিকে গালমন্দ করেন ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ কবির হোসেন মিয়াজী। এ সময় তিনি প্রতিবাদ করলে ইউপি চেয়ারম্যানসহ কয়েকজন তাঁকে মারধর ও গালমন্দ করেন।

সংবাদকর্মীদের মাধ্যমে প্রশাসনের কাছে সুবিচার কামনা করে স্বপন সাহা জানান, মারধরের সময় তিনি গ্রাম পুলিশের পোশাক পরা অবস্থায় ছিলেন। ওই দিন মারধর ছাড়াও বিভিন্ন সময়ে ইউপি চেয়ারম্যান তাঁকেসহ গ্রাম পুলিশ সদস্যদের গালমন্দ করারও অভিযোগ করেন তিনি। এই মারধরের অভিযোগে তিনি মঙ্গলবার (১০ আগস্ট) হাজীগঞ্জ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন বলে সংবাদ সম্মেলনে জানান। এ সময়  স্বপন সাহা  সংবাদকর্মীদের উদ্দেশে অভিযোগের কপি পড়ে শোনান।

গ্রাম পুলিশ স্বপন সাহার অভিযোগের বিষয়ে ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ কবির হোসেন মিয়াজীর মুঠোফোনে বলেন, তাঁর (স্বপন সাহা) অভিযোগটি সত্য নয়। অপর এক প্রশ্নের জবাবে কবির হোসেন বলেন, 'আমি যদি এমপি স্যারসহ উন্নয়ন কমিটিকে গালমন্দ ও তাঁকে মারধর করে থাকি, তাহলে তিনি প্রমাণ দিন।'

স্বপন সাহার অভিযোগের বিষয়টি নিশ্চিত করে হাজীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ হারুনুর রশিদ বলেন, 'বিষয়টি তদন্তপূর্বক আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।'

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা তকদিল হোসেন, গ্রাম পুলিশ সদস্য নুরজাহান বেগম প্রমুখ। এ সময় হাজীগঞ্জ প্রেস ক্লাবের কার্যকরী কমিটির সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।


 



সাতদিনের সেরা