kalerkantho

মঙ্গলবার । ৬ আশ্বিন ১৪২৮। ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১৩ সফর ১৪৪৩

১০ বছরের মেয়ের সঙ্গে মায়ের এ কেমন বর্বরতা!

হাতীবান্ধা (লালমনিরহাট) প্রতিনিধ   

৫ আগস্ট, ২০২১ ১৪:৩০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



১০ বছরের মেয়ের সঙ্গে মায়ের এ কেমন বর্বরতা!

লালমনিরহাটের হাতীবান্ধায় চুলে পানি দেয়ায় নিজ শিশু কন্যা আখি খাতুনের (১০) গলা সবজি কাটার ছুরি দিয়ে কেটে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে মা আফছেরী বেগমের (৩০) বিরুদ্ধে। আহত ওই শিশু বর্তমানে হাতীবান্ধা উপজেলা স্বাস্থ্য-কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন আছে। 

এ ঘটনায় গতকাল বুধবার (৪ আগস্ট) রাতে ওই শিশুর বাবা আহম্মদ আলী বাদী হয়ে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন। এর আগে বুধবার (৪ আগস্ট) সকালে উপজেলার টংভাঙ্গা ইউনিয়নের বারো দুনিয়া এলাকায় ঘটনাটি ঘটে। নিজ কন্যার গলা কাটার অভিযোগে অভিযুক্ত মা আফছেরী বেগম উপজেলার গোতামারী এলাকার ঘুটিয়া মঙ্গল গ্রামের আব্দুল হকের মেয়ে। 

জানা গেছে, মাথার চুল এলোমেলো থাকায় আখি পানি দিয়ে চুল ভিজিয়ে চিড়ুনি দিয়ে আঁচড়াতে থাকে। এ সময় তার মে আফছেরী বেগম রেগে গিয়ে মেয়েকে বলেন, চুলে পানি দিতে কে বলছে? এ কথা বলেই তিনি সবজি কাটার ছুরি দিয়ে আঁখির গলা কেটে দেন। আঁখির কান্না শুনে তার বাবা আহম্মদ আলী ছুটে আসেন। এরপর রক্তাক্ত অবস্থা আঁখিকে হাসপাতালে নিয়ে যান।

আজ বৃহস্পতিবার সকালে হাতীবান্ধা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গিয়ে দেখা যায়, গলায় ব্যাথার যন্ত্রণায় কাতরাচ্ছে আঁখি। অবাক দৃষ্টিতে বাকরুদ্ধ হয়ে তাকিয়ে আছে সে। এ সময় তার সাথে কথা হলে আঁখি বলে, চুলে পানিয়ে দিয়ে চিড়ুনি করেছি। তাই মা রাগারাগি করে তরকারি কাটার চাকু দিয়ে আমার গলা কেটে দেয়। 

এ বিষয়ে আখির বাবা আহম্মদ আলী বলেন, আমার স্ত্রী ছুরি দিয়ে নিজ মেয়ের গলা কেটে দিয়েছে। আর তাই থানায় লিখিত অভিযোগ করেছি।

এ বিষয়ে আখির মা আফছেরী বেগম বলেন, আঁখি চুলে পানি দিয়েছে আর তাই রাগ হয়ে তার গলায় ছুরি ধরি। এ সময় আঁখি মাথা নাড়ালে চাকু দিয়ে একটু কেটে গেছে।

এ বিষয়ে হাতীবান্ধা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডা. আল মামুন বলেন, আঁখিকে চিকিৎসা সেবা দেয়া হচ্ছে। সে এখন মোটামুটি ভালো আছে। 

এ বিষয়ে হাতীবান্ধা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এরশাদুল আলন বলেন, অভিযোগ পাওয়া গেছে। তদন্তের জন্য পুলিশ পাঠানো হয়েছে।



সাতদিনের সেরা