kalerkantho

শনিবার । ৩ আশ্বিন ১৪২৮। ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১০ সফর ১৪৪৩

লক্ষ্মীপুরে আ. লীগ নেতাকে কুপিয়ে রক্তাক্ত, ঢাকা নেওয়ার পথে মৃত্যু

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি   

৫ আগস্ট, ২০২১ ০৫:২১ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



লক্ষ্মীপুরে আ. লীগ নেতাকে কুপিয়ে রক্তাক্ত, ঢাকা নেওয়ার পথে মৃত্যু

লক্ষ্মীপুরে চায়ের দোকানে আড্ডা দেওয়ার সময় ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ নেতা হারুনুর রশিদ হারুনকে (৫২) এলোপাতাড়ি কুপিয়ে রক্তাক্ত করেছে। বুধবার (৪ আগস্ট) দিবাগত রাত ১টার দিকে ঢাকা হাসপাতালে নেওয়ার পথে কুমিল্লা বিশ্বরোড এলাকায় তার মৃত্যু হয়।

দুর্বৃত্তদের ধারাল অস্ত্রের আঘাতে তার দুই হাতের কব্জি, পা ও মাথায় রক্তাক্ত জখম হয়। নিহত হারুন এলাকায় প্রতিবাদী মুখ হিসেবে পরিচিত। 

লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার বশিকপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আমির হোসেন মৃত্যুর বিষয় নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, হারুন ৬ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক। কুমিল্লা বিশ্বরোড এলাকায় পৌঁছলে তার মৃত্যু হয়। তার মরদেহ লক্ষ্মীপুরে নিয়ে আসা হচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, এলাকায় সন্ত্রাস রোধে পুলিশকে তথ্য দিয়ে হারুন সব সময় সহযোগীতা করতেন। এর আগেও বিএনপির সন্ত্রাসী বাহিনী লাদেন মাসুম গ্রুপ তার ওপর হামলা চালিয়েছিল। এবারও বিএনপি-জামায়াতের সন্ত্রাসীরা পরিকল্পিতভাবে ঘটনাটি ঘটিয়েছে। এখানে কোন দলীয় কোন্দল নেই।

স্থানীয়রা জানায়, বুধবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে সদর উপজেলার বশিকপুর ইউনিয়নের আলমপুর গ্রামে হারুনের ওপর হামলার ঘটনা ঘটে। এসময় হামলাকারীরা কয়েক রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছুঁড়ে এবং কয়েকটি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায়। এতে এলাকায় আতঙ্ক সৃষ্টি হয়। পরে স্থানীয় লোকজন হারুনকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে পাঠায়। সেখান থেকে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজে পাঠানো হয়।

এদিকে খবর পেয়ে ঘটনার পর সদর হাসপাতালে হারুনকে দেখতে যান লক্ষ্মীপুর-২ (রায়পুর ও সদরের একাংশ) আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট নুরউদ্দিন চৌধুরী নয়ন।

তিনি জানান, হারুনের ওপর বিএনপি-জামায়াতের সন্ত্রাসীরা হামলা চালিয়েছে। তারা লক্ষ্মীপুরের শান্তিপূর্ণ পরিবেশকে আবারো নষ্ট করতে চাইছে। জড়িতদের গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় আনতে ২৪ ঘণ্টার আলটিমেটাম দেন তিনি।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, ঘটনার সময় আওয়ামী লীগ নেতা হারুন বাড়ির পাশে একটি চায়ের দোকানে আড্ডা দিচ্ছিলেন। হঠাৎ সিএনজিচালিত অটোরিকশাযোগে ৪-৫ জন দুর্বৃত্ত এসে তার ওপর অতর্কিত হামলা চালায়।

একপর্যায়ে তাকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে দুই হাতের কব্জি, পা ও মাথায় রক্তাক্ত জখম করে। এসময় আতঙ্ক ছড়াতে তারা কয়েক রাউন্ড ফাঁকা গুলি ও বেশ কয়েকটি ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটায়। তবে হামলার ঘটনায় সুনির্দিষ্ট কোনো কারণ জানাতে পারেনি কেউই।

এ ব্যাপারে লক্ষ্মীপুরের পুলিশ সুপার (এসপি) ড. এ এইচ এম কামরুজ্জামান সংবাদকর্মীদের জানান, দৃর্বৃত্তরা হারুনের ওপর হামলা চালিয়েছে। এ ঘটনায় জড়িতদের গ্রেপ্তারে পুলিশ কাজ করছে।



সাতদিনের সেরা