kalerkantho

রবিবার । ১১ আশ্বিন ১৪২৮। ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১৮ সফর ১৪৪৩

ঘাটাইলের ৫ গ্রামের মানুষের দুঃখ ওই দেড় কিলোমিটার রাস্তা

ঘাটাইল (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি   

১ আগস্ট, ২০২১ ১০:৪২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ঘাটাইলের ৫ গ্রামের মানুষের দুঃখ ওই দেড় কিলোমিটার রাস্তা

মাত্র দেড় কিলোমিটার রাস্তা পাকা না হওয়ায় চরম দুর্ভোগে পড়েছেন ঘাটাইল উপজেলার পাঁচ গ্রামের মানুষ। স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের কাছে বারবার দাবি জানালেও কোনো কাজ হয়নি বলে আক্ষেপ এলাকাবাসীর।

উপজেলার সন্ধানপুর, জামুরিয়া ও দিগড় ইউনিয়নের সীমান্তবর্তী এলাকা দিয়ে ঝড়কা থেকে মাইধারচালা পর্যন্ত প্রায় পাঁচ কিলোমিটার রাস্তা রয়েছে। ইতিমধ্যে জামুরিয়া অংশের রাস্তা পাকা হয়ে গেছে। সন্ধানপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে মাইধারচালা বাজার পর্যন্ত মাত্র দেড় কিলোমিটার রাস্তায় কোনো কাজ হয়নি। এই রাস্তাটুকু পাকা না হওয়ায় চরম দুর্ভোগে পড়েছেন সন্ধানপুর, মোনারপাড়া, নয়বাড়ি, মানাজি, মাইধারচালা- এই ৫ গ্রামের মানুষ।

শীতকালে ধুলো আর বর্ষাকালে কাদার কারণে এই রাস্তায় যাতায়াত করা যায় না। সন্ধানপুর গ্রামের শফিকুল ইসলাম বলেন, এই রাস্তাটুকু না হওয়ায় এসব গ্রামের মানুষকে কদমতলী হয়ে অতিরিক্ত ১৫ কিলোমিটার ঘুরে উপজেলা সদরে যেতে হয়। অথচ এই দেড় কিলোমিটার রাস্তা সংস্কার করলে সদরে যেতে দূরত্ব কমে আসবে আট কিলোমিটার। নয়াপাড়ার কাশেম বলেন, সামান্য বৃষ্টি হলে পা হাঁটু পর্যন্ত দেবে যায়। তখন পণ্য নিয়ে যাতায়াত করার উপায় থাকে না।

মাইধারচালার সার ব্যবসায়ী শাহীন বলেন, এই সড়কের আশপাশে একটি কমিউনিটি ক্লিনিক, দুটি প্রাথমিক বিদ্যালয়, একটা দাখিল মাদরাসা, এতিমখানা, একটি মাধ্যমিক বিদ্যালয় আছে। বর্ষা মৌসুমে এসব প্রতিষ্ঠানে যাতায়াত করা ভীষণ কষ্টকর।

নির্বাচনের আগে বর্তমান চেয়ারম্যান এই রাস্তাটি পাকা করার প্রতিশ্রুতি দিলেও। নির্বাচিত হওয়ায় তিন বছর পরও এটি পাকাকরণে কোনো পদক্ষেপ নেয়নি বলে জানান গ্রামবাসী। 

সন্ধানপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম তার দেওয়া প্রতিশ্রুতির কথা স্বীকার করে বলেন, আমি ইতিমধ্যে উপজেলা পরিষদের সভায় রাস্তাটি পাকাকরণের প্রস্তাব দিয়েছি। এ ব্যাপারে আমি স্থানীয় সংসদ মহোদয়ের সঙ্গে কথা বলে সর্বাত্মক চেষ্টা চালাচ্ছি।



সাতদিনের সেরা