kalerkantho

রবিবার । ১১ আশ্বিন ১৪২৮। ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১৮ সফর ১৪৪৩

শিশুকে চকলেটের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণচেষ্টা, অভিযুক্ত আটক

কেরানীগঞ্জ (ঢাকা) প্রতিনিধি   

১ আগস্ট, ২০২১ ০২:৪১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



শিশুকে চকলেটের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণচেষ্টা, অভিযুক্ত আটক

ঢাকার কেরানীগঞ্জের রোহিতপুর ইউনিয়নের সোনাকান্দা গ্রামে টাকা ও চকলেটের প্রলোভন দেখিয়ে আট বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। অভিযুক্ত একই গ্রামের চিনি মিয়ার বখাটে ছেলে আবেদ আলী (৪০)কে আটক করেছে কেরানীগঞ্জ মডেল থানা পুলিশ।

এ ব্যাপারে শিশুটির খালা রাহিলা বেগম শুক্রবার বিকেলে বাদী হয়ে কেরানীগঞ্জ মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে। পুলিশ মামলা হওয়ার পর রাতেই আসামিকে গ্রেপ্তার করে।

শিশুর খালা রাহিলা বেগম জানান, বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার সোনাকান্দা (ভূইয়া বাড়ি) প্রাইমারি স্কুলের সামনে আমার বোনের মেয়ে শিশুটি খেলা করছিল। এসময় হঠাৎ বৃষ্টি শুরু হলে সে স্কুলের বারান্দায় চলে যায়। আর সেখানে আগে থেকেই অবস্থান করা বখাটে আবেদ আলী শিশুটিকে ১০ টাকা এবং চকলেট খাওয়ানোর প্রলোভন দেখিয়ে স্কুলের পরিত্যক্ত ক্লাস রুমে নিয়ে ধর্ষণচেষ্টা করে। শিশুর কান্নাকাটি শুনে পাশের বাড়ির গৃহবধূ রুনা বেগম এগিয়ে এলে লম্পট আবেদ আলী পালিয়ে যায়।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা কেরানীগঞ্জ মডেল থানার এস আই ফিরোজ আল মামুন জানান, মডেল থানার রোহিতপুর ইউনিয়নের সোনাকান্দা গ্রামে শিশু ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে থানায় একটি মামলা হয়। মামলাটি আমার ওপর তদন্তভার আসলে আমি মামলার একমাত্র আসামিকে দ্রুত সময়ে নিজ এলাকা থেকে আটক করতে সক্ষম হয়েছি। আসামিকে গ্রেপ্তারের পর প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে তার অপকর্মের কথা স্বীকার করেছে। গ্রেপ্তারকৃত আসামিকে গতকাল শনিবার আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

কেরানীগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবু ছালাম মিয়া পিপিএম জানান, শিশু ধর্ষণচেষ্টা মামলায় আসামি আবেদ আলীকে আমরা খুব অল্প সময়ে আটক করে কোর্টের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করেছি। শিশু ধর্ষণের মতো জঘন্য অপরাধ যারাই করবে তাদের ব্যাপারে কোনো আপস নেই।



সাতদিনের সেরা