kalerkantho

রবিবার । ৪ আশ্বিন ১৪২৮। ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১১ সফর ১৪৪৩

ট্রাক এখন গণপরিবহন!

মির্জাপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি   

৩১ জুলাই, ২০২১ ১৫:১৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ট্রাক এখন গণপরিবহন!

রবিবার (১ আগস্ট) থেকে কারখানা খুলে দেওয়ার ঘোষণায় হাজার হাজার শ্রমিক স্বাস্থবিধি উপেক্ষা করে বিভিন্ন যানবাহনে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কর্মস্থলে যাওয়ার চেষ্টা করছেন। গণপরিবহন বন্ধ থাকায় শ্রমিকরা কিছুদূর পায়ে হেঁটে, মালবোঝাই ট্রাকের ছাদে, খোলা পিকআপে, মোটরসাইকেল, সিএনজি চালিত অটোরিকশা, বিদ্যুৎ চালিক রিকশা ও লেগুনায় চেপে কর্মস্থলে যাওয়ার চেষ্টা করছেন। 

শনিবার বেলা সারে ১২টায় ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের মির্জাপুর বাইপাস এলাকায় গিয়ে এই চিত্র দেখা গেছে। গন্তব্যে ফিরতে গুনতে হচ্ছে কয়েকগুন বেশি ভাড়া।

চলমান লকডাউনের মধ্যে সরকার গতকাল শুক্রবার আকস্মিকভাবে রবিবার (১ আগস্ট) থেকে রপ্তানিমুখী শিল্পকারখানা খুলে দেওয়ার ঘোষণা দেন। লকডাউনের কারণে সকল প্রকার গণপরিবহন বন্ধ রয়েছে। এই ঘোষণার পর পরই শিল্পকারখানার শ্রমিকরা শনিবার সকাল থেকেই স্বাস্থবিধি উপেক্ষা করে জীবনের ঝুকি নিয়ে দেশের উত্তর ও পশ্চিমাঞ্চলের বিভিন্ন স্থান থেকে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক হয়ে কর্মস্থলে ফিরতে শুরু করেছে।

সিরাজগঞ্জ থেকে ঢাকার উদ্দেশে যাত্রা করা আব্দুল্লাহ জানান, ঢাকার আশুলিয়ায় তাদের কারখানা। রবিবার থেকে কারখানা খুলে দেওয়ার বিষয়ে শুক্রবার টিভিতে সংবাদের মাধ্যমে জানতে পারেন। তিনিসহ অনেকেই ঝুকি ও ভোগান্তি নিয়েই বের হয়েছেন বলে জানান।

একই এলাকার হামিদা বেগম, নয়ন মিয়া ও নান্নু মিয়া বলেন, কারখানা খোলার খবর পেয়ে বাড়ি থেকে বের হয়েছি। তারা জানান, কারখানা খোলার ঘোষণা দেওয়া হয়েছে। আমরা কিভাবে কর্মস্থলে যাবো তার ব্যবস্থা করা হয়নি। বাস চলার অনুমতি দেওয়া হলে আমাদের জন্য ভালো হতো। কর্মস্থলে যেতে হবে তাই ঝুঁকি নিয়েই যাইতেছি।

গোড়াই হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আজিজুল হক বলেন, হঠাৎ করে শিল্প কারখানা খোলার ঘোষণা হয়েছে। লকডাউনে সকল প্রকার গণপরিবহন বন্ধ রয়েছে। তাই তারা ঝুঁকি নিয়েই কর্মস্থলের দিকে যাত্রা করেছে।



সাতদিনের সেরা