kalerkantho

শুক্রবার । ২ আশ্বিন ১৪২৮। ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১। ৯ সফর ১৪৪৩

মাত্র ৩০ ঘণ্টায় হত্যা মামলার চার্জশিট দিল পুলিশ!

অনলাইন ডেস্ক   

৩১ জুলাই, ২০২১ ১১:২৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মাত্র ৩০ ঘণ্টায় হত্যা মামলার চার্জশিট দিল পুলিশ!

ঘাতক রুবেলকে হাতেনাতে ধরে পুলিশে দেয় স্থানীয়রা।

গাজীপুরের শ্রীপুরে দোকানে ঢুকে ব্যবসায়ীকে ছুরিকাঘাতে হত্যা মামলার অভিযোগপত্র দাখিল করেছে পুলিশ। হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় মামলা করার ৩০ ঘণ্টার মধ্যে এ অভিযোগপত্র দেয়া হয়। অভিযোগপত্রে মো. রুবেল নামে একজনকে আসামি করা হয়।

শনিবার (৩১ জুলাই) শ্রীপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মাহফুজ ইমতিয়াজ ভূঁইয়া এ তথ্য জানিয়েছেন।

এ ঘটনায় নিহত মোখলেছুর রহমান (৩২) ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলার জামিরাপাড়া গ্রামের আফাজ উদ্দিনের ছেলে। তিনি শ্রীপুরের বেড়াইদেরচালা এলাকায় জমি কিনে স্ত্রী-সন্তান নিয়ে বসবাস করতেন। গ্রেপ্তার মো. রুবেল (৩০) ঝালকাঠি জেলার রাজাপুর থানার নৈহাটি গ্রামের শামসুল হকের ছেলে।

শ্রীপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মাহফুজ ইমতিয়াজ ভূঁইয়া জানান, গত ২৮ জুলাই বেলা ১১টার দিকে শ্রীপুর পৌরসভার বেড়াইদেরচালা লিচুবাগান এলাকায় মা টেলিকম নামে একটি দোকানে ঢুকে দোকানমালিক মোখলেছুর রহমানকে ছুরিকাঘাত করে মো. রুবেল নামে এক ব্যক্তি।

পরে দোকানের ড্রয়ার থেকে এক হাজার ১১৭ টাকা ও তিনটি মোবাইল ফোন নিয়ে পালানোর চেষ্টা করলে স্থানীয় লোকজন তাকে ধরে ফেলে। পরবর্তীতে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে নিহতের সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করে মরদেহ শহীদ তাজউদ্দিন আহমদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়।

পাশাপাশি ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন সংগ্রহ, ছিনতাই করা এক হাজার ১১৭ টাকা, তিনটি মোবাইলসহ হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত চাকু উদ্ধার, আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি রেকর্ডসহ সব কার্যক্রম শেষ করে মামলা দায়েরের মাত্র ৩০ ঘণ্টার মধ্যে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা শ্রীপুর থানার উপ-পরিদর্শক মফিজুর রহমান মল্লিক জানান, ঘটনার পরপরই পুলিশ আসামিকে গ্রেপ্তার করে আদালতে তোলা হয়। মামলার একমাত্র আসামি ছিনতাইকারী রুবেল আদালতে ১৬৪ ধারায় হত্যার দায় স্বীকার করেছেন। তাই দ্রুত মামলাটির অভিযোগপত্র দেয়া সম্ভব হয়েছে।



সাতদিনের সেরা