kalerkantho

মঙ্গলবার । ৬ আশ্বিন ১৪২৮। ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১৩ সফর ১৪৪৩

চাঁদপুরে বিয়ের আয়োজনে বেরসিক পুলিশ

চাঁদপুর প্রতিনিধি   

২৮ জুলাই, ২০২১ ২২:৩৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চাঁদপুরে বিয়ের আয়োজনে বেরসিক পুলিশ

চাঁদপুরের কচুয়ায় পণ্ড হলো বিয়ের আয়োজন। কারণ, তাতে ব্যাপক জনসমাগম উপস্থিত হওয়ার কথা ছিল। শুধু তাই নয়, বর ও কনের পক্ষ থেকে মুচলেকা আদায় করা হয়। তারা যেন করোনা পরিস্থিতির কঠোর বিধি-নিষেধ শেষ হওয়া মাত্র পরিবেশ স্বাভাবিক হলে নতুন করে বিয়ের আয়োজনটি সম্পূর্ণ করে।

বুধবার (২৮ জুলাই) দুপুরে উপজেলার পালাখাল ইউনিয়নের সফিবাদ গ্রামের মোল্লা বাড়িতে এই বিয়ের আয়োজন করেন কৃষক বাবুল মোল্লা।

এসময় পাশের আতিশ্বর গ্রামের আলী আশরাফ চৌধুরীর ছেলে বর সাগর চৌধুরীর (২৫) সঙ্গে আসা ও কনে খাজিদা আক্তারের (১৭) বাড়ির মিলিয়ে তিন শ মেহমানের জন্য ভুরি ভোজের আয়োজন করা হয়।

এদিকে, করোনার বিস্তার ঠেকাতে কঠোর বিধি-নিষেধের মধ্যে এমন আয়োজনের সংবাদ পৌঁছে প্রশাসন ও পুলিশের কাছে। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে বিয়ের আয়োজন পণ্ড করে দেয়।

এ সময় বর ও কনের পক্ষ থেকে মুচলেকা আদায় করা হয়। পরবর্তী সুবিধাজনক সময় যেন তারা বিয়ের আয়োজন করেন।

এমন তথ্য জানান, কচুয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দীপায়ন দাশ শুভ। ঘটনা সম্পর্কে জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ বলেন, এমন কঠিন পরিস্থিতিতে এই ধরনের সামাজিক আয়োজনকে নিরুৎসাহিত করা হয়েছে। শুধু তাই নয়, এটি দণ্ডনীয় অপরাধও বটে।

কচুয়া থানার ওসি মোহাম্মদ মহিউদ্দিন জানান, জেলা পুলিশ সুপার মিলন মাহমুদের নির্দেশে উপ-পরিদর্শক জাহাঙ্গীর হোসেনকে ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়। সেখানে উপজেলা প্রশাসন এবং পালাখাল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইমাম হোসেনের সহযোগিতা নিয়ে দু'পক্ষকে বুঝিয়ে আপাতত বিয়ের সব আনুষ্ঠানিকতা স্থগিত করা হয়।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, কনের বাবা অতিথিদের রুচি চিন্তা করে, পোলাও, সাদা ভাত, মুরগি, গরুর গোশত, দধি এবং কোমল পানির আয়োজন করেন। এতে প্রায় তিন শ অতিথির আপ্যায়নের ব্যবস্থা করা হয়। এদিকে খাবারগুলো শেষ পর্যন্ত কি করা হয়েছে তা জানাতে পারেনি কেউ। স্থানীয় একটি সূত্র জানিয়েছে, প্যান্ডেল খুলে ফেলার তড়িঘড়ি করে অতিথিরা যে যেমন পেরেছে। উটকো ঝামেলা এড়াতে খেয়েই ভো দৌড় দিয়েছে।



সাতদিনের সেরা