kalerkantho

শুক্রবার । ২ আশ্বিন ১৪২৮। ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১। ৯ সফর ১৪৪৩

ঘরে জোড়া লাশ, কারণ ১২ লাখ টাকা?

নিজস্ব প্রতিবেদক, কুমিল্লা   

২৭ জুলাই, ২০২১ ২০:৫৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ঘরে জোড়া লাশ, কারণ ১২ লাখ টাকা?

কুমিল্লার লালমাইয়ে একই ঘরে থেকে দুই যুবকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। আজ মঙ্গলবার উপজেলার বেলঘর উত্তর ইউনিয়নের ইছাপুরা গ্রামের একটি ঘর থেকে তাদের লাশ উদ্ধার করা হয়। 

নিহতরা হচ্ছেন- ইছাপুরা গ্রামের হাসানুজ্জামানের ছেলে স্থানীয় ব্যবসায়ী হায়াতুন্নবী শরিফ (২৮) এবং অপরজন একই গ্রামের আবুল হাশেমের ছেলে দোকানের কর্মচারী ফয়েজ আহমেদ (২৭)।

নিহতদের পরিবার ও স্থানীয়দের ধারণা, ঈদে গরু বিক্রির টাকার লোভে শরিফ ও ফয়েজকে হত্যা করেছে দুর্বৃত্ত।

জানা যায়, শরিফের বাবা-মা সোমবার রাতে তার বোনের বাড়িতে বেড়াতে যান। শরিফ এবং ফয়েজ দোকান বন্ধ করে ফাঁকা ঘরে ছিলেন। তারা ঘুমিয়ে গেছে ভেবে শরিফের বাবা-মা ফিরে এসও ঘুমিয়ে পড়েন। মঙ্গলবার সকালে তাদেরকে ডাকতে যান তার বাবা। সাড়া না পেয়ে ঘরের দরজা ভাঙলে তাদের লাশ দেখতে পান।

শরিফের বাবা হাসানুজ্জামান বলেন, তার ছেলে শরিফের কাছে গরু বিক্রির ১২ লাখ টাকা ছিলো। গতকাল (সোমবার) বিকেলে খেলার মাঠে আরো কিছু টাকা একজন ক্রেতা দিয়ে যায়। উপস্থিত লোকজনের সামনেই শরীফ সেই টাকা নেন। সম্ভবতো টাকার লোভে দুর্বৃত্তরা রাতের কোন সময় ফয়েজ আহমেদকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে এবং শরিফ আহমেদকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে হত্যা করে।

লালমাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ আইয়ুব বলেন, শরিফ ও ফয়েজ নামের দুই ব্যক্তির লাশ পাওয়া গেছে। একটি রুমে একজনের লাশ খাটে এবং অন্যজনের লাশ রশিতে ঝুলন্ত অবস্থায় পাওয়া যায়। ঘটনা তদন্ত ও লাশ ময়নাতদন্তের পর ঘটনার বিস্তারিত জানা যাবে। 



সাতদিনের সেরা