kalerkantho

মঙ্গলবার । ৬ আশ্বিন ১৪২৮। ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১৩ সফর ১৪৪৩

বুদ্ধি প্রতিবন্ধী কিশোরীকে ডেকে নিয়ে রাতভর ধর্ষণের অভিযোগ

নকলা (শেরপুর) প্রতিনিধি   

২৬ জুলাই, ২০২১ ০৭:২৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বুদ্ধি প্রতিবন্ধী কিশোরীকে ডেকে নিয়ে রাতভর ধর্ষণের অভিযোগ

অভিযুক্ত ধর্ষক হাছেন আলী।

শেরপুর জেলার নকলায় এক বুদ্ধি প্রতিবন্ধী কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগে এজাহার নামীয় ধর্ষক হাছেন আলীকে গ্রেপ্তার করে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। হাছেন আলী উপজেলার বানেশ্বরদী ইউনিয়নের মোজার বাজার এলাকার জালাল উদ্দিনের ছেলে।

রবিবার (২৫ জুলাই) দুপুরে হাছেন আলীকে শেরপুর আদালতে সোপর্দ করা হয়। ২৪ জুলাই শনিবার রাতে তাকে মোজার বাজার এলাকার নিজ বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করে নকলা থানা পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, বুদ্ধি প্রতিবন্ধী ধর্ষিতা কিশোরী দরিদ্র অসহায় পরিবারের সন্তান। তাদের নিজের কোন জমি ও ঘর না থাকায় পোলাদেশী গ্রামের আশ্রয়ন প্রকল্পের প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘরে পরিবার পরিজন নিয়ে বসবাস করে। দারিদ্রতা ও বুদ্ধি প্রতিবন্ধীর সুযোগে বিভিন্ন লোভ দেখিয়ে ওই কিশোরীকে ২৩ জুলাই রাতে ডেকে নিয়ে সারারাত ধর্ষণ করে ২৪ জুলাই ভোরে আশ্রয়ন প্রকল্পে তাকে পৌঁছে দেয়। পরে বিষয়টি জানাজানি হলে ওই বুদ্ধি প্রতিবন্ধী কিশোরী নিজে বাদী হয়ে নকলা থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করে।

এলাকাবাসীর অনেকে জানান, এর আগেও লম্পট হাছেন আলী লোভ দেখিয়ে ওই কিশোরীকে ২/৩ বার অজ্ঞাত স্থানে রেখে পর দিন বাড়িতে পৌঁছে দেওয়ার ঘটনা ঘটেছে। কিন্তু পরিবার দরিদ্র ও অসহায় হওয়ায় মেয়ের ভবিষ্যৎ ও পরিবারের মানসম্মানের দিক বিবেচনা করে বিষয়টি নিজেদের মধ্যে চাপা দেওয়া হয়। তাই এর আগে জানাজানি ও কোন প্রকার অভিযোগ করা হয়নি।

নকলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুশফিকুর রহমান ভিকটিম কর্তৃক অভিযোগ দায়েরের বিষয় ও এজাহার নামীয় ধর্ষক হাছেন আলীকে গ্রেপ্তার করে আদালতে সোপর্দ করার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। ওসি মুশফিকুর রহমান জানান, নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ (সংশোধনী/০৩) এর ২২ ধারায় ধর্ষক হাছেন আলীকে গ্রেপ্তার করে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।



সাতদিনের সেরা