kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ আশ্বিন ১৪২৮। ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১৫ সফর ১৪৪৩

চাঁদপুরে পুলিশের ব্রিফিং

আমেনার সঙ্গে দেখা করতে এসে খুন হন রিপন

চাঁদপুর প্রতিনিধি   

২৪ জুলাই, ২০২১ ১৫:২২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আমেনার সঙ্গে দেখা করতে এসে খুন হন রিপন

চাঁদপুরের শাহরাস্তিতে মৌসুমি চামড়া ব্যবসায়ী বেলায়েত হোসেন রিপন (৩৮) হত্যায় জড়িত দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। মূলত পরকীয়ার জেরে খুন হন তিনি। এই নিয়ে আজ শনিবার (২৪ জুলাই) দুপুরে জেলা পুলিশ সুপার মিলন মাহমুদ প্রেসব্রিফিং করে হত্যাকাণ্ড এবং জড়িত আসামিদের গ্রেপ্তারের কথা উপস্থিত সাংবাদিকদের জানান।

পুলিশ সুপার জানান, গতকাল শুক্রবার দুপুরে নিহতের লাশ উদ্ধারের কয়েক ঘণ্টার মধ্যে তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহার করে শাহরাস্তি উপজেলার গঙ্গারামপুর এলাকা থেকে ফজলুর রহমান (৫০) ও তার স্ত্রী আমেনা বেগমকে (৩০) গ্রেপ্তার করা হয়। তিনি আরো জানান, নিহত বেলায়েত হোসেন রিপনের সঙ্গে ফজলুর রহমানের স্ত্রী আমেনা বেগমের পরকীয়ার সম্পর্ক ছিল। অন্য সময়ের মতো গত বৃহস্পতিবার রাতেও তারা দুজন মিলিত হতে গেলে সেখানে হঠাৎ উপস্থিত ফজলুর রহমানের হাতের লাঠির আঘাতে নিহত হন বেলায়েত হোসেন রিপন। পরে তার গলায় রশি ঝুলিয়ে আধা কিলোমিটার দূরে একটি ধানক্ষেতের পাশে নিহত রিপনের লাশ ফেলে রাখে ফজলুর রহমান। এসময় তার স্ত্রী নির্বিকার ছিলেন। 

প্রেসব্রিফিং অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ ও প্রশাসন) সুদীপ্ত রায়, শাহরাস্তি-কচুয়া সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার আবুল কালাম চৌধুরী, শাহরাস্তি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুল মান্নান এবং হত্যা মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশ পরিদর্শক মো. আসাদুজ্জামান।

এদিকে, পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হওয়া ফজলুল রহমান ও আমেনা বেগমকে শনিবার দুপুরে চাঁদপুরের আদালতে হাজির করা হয়। সেখানে ১৬৪ ধারায় তারা দুজন স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করেন। পরে তাদের জেলহাজতে পাঠিয়ে দেওয়া হয়।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, শাহরাস্তি উপজেলার গঙ্গারামপুর গ্রামের মৃত মৌলভী মাকসুদুর রহমানের ছেলে বেলায়েত হোসেন রিপন। স্ত্রী ও তার তিন সন্তান রয়েছে ঘরে। গ্রামের কৃষিকাজের সঙ্গে জড়িত থাকলেও এবারেই প্রথম কোরবানির পশুর চামড়া ব্যবসার সঙ্গে জড়িত হন তিনি।  



সাতদিনের সেরা