kalerkantho

রবিবার । ১০ শ্রাবণ ১৪২৮। ২৫ জুলাই ২০২১। ১৪ জিলহজ ১৪৪২

পঞ্চগড়ে ঈদের দিন করোনায় মৃত ব্যক্তির স্বজনদের বাড়িতে জেলা প্রশাসক

অনলাইন ডেস্ক   

২২ জুলাই, ২০২১ ১১:০৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পঞ্চগড়ে ঈদের দিন করোনায় মৃত ব্যক্তির স্বজনদের বাড়িতে জেলা প্রশাসক

করোনা আক্রান্ত হয়ে পঞ্চগড় জেলায় এ পর্যন্ত মারা গেছেন ৪১ জন। ঈদের দিন এসব পরিবারে স্বভাবতই শোকের ছায়া নেমে আসার কথা। বিষয়টি অনুধাবন করে ঈদ উল আযহার দিন এমন ৫টি পরিবারে সরাসরি হাজির হলেন পঞ্চগড়ের জেলা প্রশাসক মো. জহুরুল ইসলাম। তার স্ত্রী ও সন্তান সদ্য করোনামুক্ত হয়েছেন। 

জেলা প্রশাসক পরিবারের স্বজনদের সান্তনা দিয়ে প্রত্যেকের পরিবারে পোলাওয়ের চাল, সেমাই, চিনি, তেল, সাবান, গুড়া দুধ, ফলমূল ইত্যাদি উপহার সামগ্রী প্রদান করেন। বাকি ৩৬ জনের বাড়িতেও জেলা প্রশাসকের পক্ষে উপজেলা নির্বাহী অফিসারগণ উপহার সামগ্রী তুলে দেন। স্বজনহারা শোকসন্তপ্ত পরিবার জেলা প্রশাসককে এমনভাবে কাছে পেয়ে অভিভূত। তাদের বক্তব্য, এবার একজন মানবিক জেলা প্রশাসক পেলো পঞ্চগড়বাসী।

পঞ্চগড় সদর ইউনিয়নের মৌলভী পাড়া গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস সামাদ গত বছরের ১৩ জুন মারা যান। তার পরিবারের সদস্যরা জানান, গত এক বছরে সেভাবে কেউ তাদের খবর নেয়নি। ঈদের দিন জেলা প্রশাসক নিজে বাড়িতে এসেছেন, অনেক কষ্টের মাঝেও এতে তারা খুশি হয়েছেন।

ঈদের দিন বিকেলে পঞ্চগড় জেলা প্রশাসক মো. জহুরুল ইসলাম ছুটে যান আধুনিক সদর হাসপাতালের করোনা ইউনিটে চিকিৎসাধীন ১৮ জনের বাড়িতে। তাদের পরিবারের সদস্যদের কাছেও ঈদ উপহার হিসেবে তুলে দেন কোরবানির মাংস ও অন্যান্য খাদ্যসামগ্রী। এর আগে সরকারি শিশু পরিবারের এতিমদের সঙ্গে ঈদ উদযাপন করেন জেলা প্রশাসক। ব্যক্তিগত উদ্যোগে সেখানে গরু কোরবানিরও ব্যবস্থা করেন।

পঞ্চগড়ের জেলা প্রশাসক মো. জহুরুল ইসলাম কালের কণ্ঠকে বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী করোনায় আক্রান্ত ও মৃত ব্যক্তিদের স্বজনদের খোঁজখবর নিচ্ছেন। সেই কাজের অংশ হিসেবে আমি আমার দায়িত্ব পালন করার চেষ্টা করেছি।

তিনি বলেন, বিপদে আপদে একে অপরের পাশে দাঁড়ানো মানবিক দায়িত্ব। করোনাকালে এসব দায়িত্ব পালনে সবাইকে আরো আন্তরিক হওয়া উচিত।



সাতদিনের সেরা