kalerkantho

রবিবার । ১৭ শ্রাবণ ১৪২৮। ১ আগস্ট ২০২১। ২১ জিলহজ ১৪৪২

মরা গরুর মাংস বিক্রি?

ঈশ্বরদী (পাবনা) প্রতিনিধি   

১৭ জুলাই, ২০২১ ১৯:১৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মরা গরুর মাংস বিক্রি?

ঈশ্বরদীর সাহাপুর ইউনিয়নের আজিজলতলা মোড়ে মরা গরু জবাই করে মাংস বিক্রয় করার অপরাধে অনিক হোসেন (২৪) নামের কসাইকে তিন মাসের কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। একই সঙ্গে তাকে এক হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

আজ শনিবার দুপুরে ঈশ্বরদী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) পিএম ইমরুল কায়েস নিজ কার্যালয়ে আদালত বসিয়ে এই রায় দেন। আটক অনিক কসাই ঈশ্বরদীর সাহাপুর ইউনিয়নের মহাদেবপুর গ্রামের সিরাজ আলী মন্ডলের ছেলে। 

আটক কসাই অনিক, থানা ও এলাকাবাসী সুত্রে জানা যায়, জানা যায়, অনিক দীর্ঘদিন ধরে তার বাবা সিরাজ মন্ডল, চাচা মিরাজ মন্ডল ও ভাই জনি মন্ডলকে সঙ্গে নিয়ে বিভিন্ন এলাকা থেকে মরা গরু ও চোরাই গরু ক্রয় করেন। সেগুলো জবাই করে মাংস বিক্রয় করে আসছিলেন দীর্ঘদিন ধরে। গত শুক্রবার বিকেলে কুষ্টিয়া থেকে গরু বোঝাই করে ব্যবসায়ীরা ঢাকায় নিয়ে যাওয়ার পথে এই গরুটি মারা যায়। সেখান থেকে কিনে জবাই করে মাংস বিক্রি করছিলেন অনিক কসাই।

অনিকের চাচা মিরাজ মন্ডল, ভাই জনি মন্ডল ও বাবা সিরাজ মন্ডল পালিয়ে গেছে। এলাকাবাসীর উপস্থিতিতে পুলিশের পক্ষ থেকে আটক সমস্ত মাংস পুঁতে ফেলা হয়।

ঈশ্বরদী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) পিএম ইমরুল কায়েস জানান, মরা গরু জবাই করে মাংস বিক্রয়ের অপরাধে কসাই অনিক হোসেন মন্ডলকে তিন মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড ও এক হাজার টাকা জরিমানা অনদায়ে আরো সাত দিনের কারাদণ্ড প্রদান করা হয়েছে।

ঈশ্বরদী থানার ওসি মো. আসাদুজ্জামান আসাদ জানান, আটক কসাই অনিককে বিকেলে পাবনা আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।



সাতদিনের সেরা