kalerkantho

মঙ্গলবার । ৬ আশ্বিন ১৪২৮। ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১৩ সফর ১৪৪৩

'এই কয় টাকার জন্য আমি মারা যাবো?'

অনলাইন ডেস্ক   

১৬ জুলাই, ২০২১ ১৬:৪৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



'এই কয় টাকার জন্য আমি মারা যাবো?'

গৌর বণিক। বয়স মাত্র ৩৫-৩৬। অথচ বিছানায় শুয়ে এখন বাঁচার আকুতি জানিয়ে কাতরাচ্ছেন। বাম দিকের কিডনি নষ্ট। বেঁচে থাকতে হলে সেটাকে দ্রুত শরীর থেকে অপসারণ করতে হবে। না হলে ডান পাশের কিডনিটিও সংক্রমিত হতে পারে। চিকিৎসক এমন কথা বলেছিলেন মাস দেড়েক আগে। কিন্তু এখন পর্যন্ত কিডনি অপসারণ করতে যে খরচ সেটা কেন, সংসারের খাবারই জুটছে না। ক্রমশ শরীর খারাপের দিকে যাচ্ছে। কিডনি অপসারণের জন্য অস্ত্রোপচার প্রয়োজন তার জন্য খরচ পড়বে দেড় লাখ টাকা। এই দেড় লাখ টাকার জন্য মৃত্যুর দিকে এগিয়ে যাচ্ছেন গৌর বণিক।

গৌর ধামরাই বাজারের বিনোদীনি কসমেটিকসের দোকানে সেলসম্যানের কাজ করেন। মাসে ৯ হাজার টাকা বেতন। সেই বেতন সদ্যবিবাহিত স্ত্রীকে নিয়ে বাসা ভাড়া নিয়ে থাকেন। সবকিছুই ঠিক ঠিকঠাক চলছিল। কিন্তু ক্রমে পেটের ব্যথায় অসুস্থ হচ্ছিলেন। পরে দুই বন্ধু মিলে গৌরকে নিয়ে যান মিরপুরের কিডনি ফাউন্ডেশনে। সেখানেই ধরা পরীক্ষার পর, ধরা পড়ে একটি কিডনি অকেজো হয়ে পড়েছে সম্পূর্ণ। 

কিডনি ফাউন্ডেশন কর্তৃক ল্যাব এইডে পাঠানো পরীক্ষার ফল 

গৌর বণিকের বাবা নেই, মাও মারা গেছেন বছর চারেক আগে। বড় ভাই রয়েছেন। কিন্তু তিনিও লকডাউনে চাকরি হারিয়ে বেকার। এমন পরিস্থিতিতে দিশেহারা হয়ে পড়েছেন এই তরুণ। পরিবারের সেরকম কেউ না থাকায় তাকে সহযোগিতার জন্য যে কেউ এগিয়ে আসবেন সেটাও হয়ে উঠছে না। 

ব্যথাতুর কণ্ঠে গৌর বলেন, 'আমার নিজের জমানো টাকা যেসব ছিল সেসব চিকিৎসা করতেই শেষ হয়ে গেছে। এখন এখানে একটা ভাড়া বাসায় থাকি। লকডাউনের কারণে এমনিতেও অভাব অনটন লেগেই ছিল। তারমধ্যে এই অসুখ, আমি জানি না আসলে কিভাবে বাঁচবো? এই কয় টাকার জন্য আমি মারা যাবো?'   

গৌর বণিকের সঙ্গে যোগাযোগ ও বিকাশ নম্বর 
০১৭২১ ২৭৫৫ ৬৩

ব্যাংক অ্যাকাউন্ট
SIBL 
01611340052701  (ধামরাই ব্রাঞ্চ)



সাতদিনের সেরা