kalerkantho

রবিবার । ১০ শ্রাবণ ১৪২৮। ২৫ জুলাই ২০২১। ১৪ জিলহজ ১৪৪২

সন্তানদের ভয়ে ঘর ছাড়া বাবা-মা!

নাঙ্গলকোট (কুমিল্লা) প্রতিনিধি    

১২ জুলাই, ২০২১ ১৫:৪৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সন্তানদের ভয়ে ঘর ছাড়া বাবা-মা!

কুমিল্লার নাঙ্গলকোটের লক্ষীপুর গ্রামের আব্দুল গফুর ও তার স্ত্রীকে জিম্মি করে স্ট্যাম্পে স্বাক্ষর নিয়ে ও জমি দখল করে বাড়ি-ঘর ছাড়া করার অভিযোগ ওঠেছে তার ছেলে রবিউল হোসেন, ইমাম হোসেন, মেয়ে মাসুমা আক্তার, বিলকিছ আক্তারের বিরুদ্ধে। এ ব্যাপারে অসহায় পিতা-মাতা কুমিল্লার আদালতে মামলা করেও সন্তানদের ভয়ে বাড়ি ফিরতে পারেননি।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার বটতলী ইউনিয়নের লক্ষীপুর গ্রামের আব্দুল গফুর ড্রাইভারের প্রথম স্ত্রী ৩ বছর আগে মারা যান। পরে ছেলে-মেয়েরা তাকে ফের বিয়ে করান একই উপজেলার জোড্ডা পূর্ব ইউনিয়নের বাইয়ারা গ্রামে। বিয়ের পর প্রথম স্ত্রীর ছেলে-মেয়েরা পিতা ও সৎমাকে সন্তান না নিতে চাপ সৃষ্টি করে। বিয়ের কিছুদিন পর আব্দুল গফুর ড্রাইভারের দ্বিতীয় স্ত্রী ফাতেমা আক্তারের গর্ভে সন্তান আসার খবর শুনে ক্ষিপ্ত হয়ে যান ছেলে-মেয়েরা। এরপর থেকে দফায়-দফায় তাদের ওপর হামলা করেন তারা। এনিয়ে সামাজিকভাবে কয়েক বার সালিস বৈঠক বসলেও ছেলে-মেয়েরা সিদ্ধান্ত অমান্য করে।

গত ৮ জুন পিতা-মাতা ও তাদের ১৮ মাসের শিশু কন্যা নাহিদা আক্তারকে নির্যাতন করে ঘরে জিম্মি করে হত্যার হুমকি দিয়ে স্ট্যাম্পে স্বাক্ষর নিয়ে তাদের স্বর্ণলংকার, নগদ ৫০ হাজার টাকা ও আসবাবপত্র লুট করে নিয়ে গিয়ে বাড়ি থেকে বের করে দেওয়া হয়। পরে দ্বিতীয় স্ত্রীর আত্মীয় স্বজনরা এসে তাদেরকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেন। এ ব্যাপারে নাঙ্গলকোট থানায় অভিযোগ করলে থানা পুলিশ তদন্ত করে প্রতিবেদন কুমিল্লার আদালতে পাঠায়। মামলার খবরে ছেলে-মেয়েরা ক্ষিপ্ত হয়ে তাদেরকে হত্যা করবে বলে হুমকি দেওয়ার পর থেকে আব্দুল গফুর ও তার স্ত্রী প্রাণ ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন। এ ব্যাপারে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন ভুক্তভোগীরা।

স্থানীয় ইউপি সদস্য মোহাম্মদ হানিফ বলেন, ‘আমরা স্থানীয়ভাবে কয়েক দফা সালিস করে সমাধান করলেও আব্দুল গফুরের ছেলে-মেয়েরা তা অমান্য করে।’



সাতদিনের সেরা