kalerkantho

বুধবার । ২০ শ্রাবণ ১৪২৮। ৪ আগস্ট ২০২১। ২৪ জিলহজ ১৪৪২

ইমামতির আড়ালে নব্য জেএমবির বোমার কারিগর

আড়াইহাজারে বাড়ি ঘিরে অভিযান, বোমা উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিবেদক ও আড়াইহাজার (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি   

১২ জুলাই, ২০২১ ০১:০১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আড়াইহাজারে বাড়ি ঘিরে অভিযান, বোমা উদ্ধার

রাজধানী থেকে আব্দুল্লাহ আল মামুন নামে নব্য জেএমবির এক সদস্যকে গ্রেপ্তারের পর তাঁর দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলার নোয়াগাঁও ও সোনারগাঁওয়ের মদনপুর এলাকার দুটি বাড়িতে অভিযান চালানো হয়েছে। ঢাকার কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের (সিটিটিসি) সদস্যরা গতকাল রবিবার মধ্যরাত পর্যন্ত বাড়ি দুটি ঘিরে তল্লাশি চালান।

এ সময় নোয়াগাঁও থেকে উদ্ধার করা তিনটি বোমা নিষ্ক্রিয় করে সিটিটিসির বম্ব ডিসপোজাল ইউনিট। মধ্যরাতে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত মদনপুরের কাজীপাড়ার একটি বাড়িতে অভিযান চলছিল। পুলিশ কর্মকর্তারা জানান, মামুন নোয়াগাঁও এলাকার মসজিদের ইমাম হিসেবে দায়িত্ব পালন করার আড়ালে নব্য জেএমবিতে সক্রিয় ছিলেন। নিজের বাসায় গোপনে বোমা তৈরি ও মজুদ করেন তিনি। সিদ্ধিরগঞ্জে পুলিশ বক্সে বোমা উদ্ধারের ঘটনার তদন্তে মামুনকে শনাক্ত করা হয়। 

সিটিটিসির বম্ব ডিসপোজাল ইউনিটের অতিরিক্ত উপপুলিশ কমিশনার রহমত উল্লাহ চৌধুরী সুমন জানান, গতকাল  আব্দুল্লাহ আল মামুনকে আটকের পর তাঁর দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে আড়াইহাজার থানাধীন নোয়াগাঁও এলাকার মিয়াবাড়ির একটি ভবনে অভিযান চালানো হয়। মামুন নোয়াগাঁও এলাকার একটি মসজিদের ইমাম ছিলেন। ইমামতির আড়ালে তিনি বোমা তৈরির একটি কারখানা গড়ে তোলেন। তাঁর ওই আস্তানায় তৈরি করা বোমা গত ১৯ মে সিদ্ধিরগঞ্জের একটি পুলিশ বক্সে বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। 

তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করে তাঁর সহযোগীদের শনাক্ত করার চেষ্টা চলছে। একই সঙ্গে জঙ্গি আস্তানায় কী পরিমাণ এক্সপ্লোসিভ আছে, তা  দেখা হচ্ছে। মদনপুরের কাজীপাড়ায় আরেকটি বাড়ি ঘিরে অভিযান শুরু হচ্ছে।

আড়াইহাজার থানার ওসি আনিছুর রহমান কালের কণ্ঠকে জানান, গত ১৯ মে সিদ্ধিরগঞ্জের সাইনবোর্ড এলাকায় পুলিশ বক্সের সামনে থেকে উদ্ধার করে বোমা নিষ্ক্রিয় করা হয়। ওই ঘটনার সূত্র ধরে নোয়াগাঁও এলাকার বাড়িটিকে ঘিরে সন্ধ্যার পর অভিযান শুরু হয়। রাত ১২টা পর্যন্ত তিনটি বোমা উদ্ধার ও নিষ্ক্রিয় করা হয়েছে।



সাতদিনের সেরা