kalerkantho

বুধবার । ১৩ শ্রাবণ ১৪২৮। ২৮ জুলাই ২০২১। ১৭ জিলহজ ১৪৪২

বিয়ে করতে এসে বর গেলেন জেলে, সঙ্গে কাজি

নন্দীগ্রাম (বগুড়া) প্রতিনিধি   

৯ জুলাই, ২০২১ ১৮:১৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বিয়ে করতে এসে বর গেলেন জেলে, সঙ্গে কাজি

চলমান লকডাউনে বিধি-নিষেধ অমান্য করে বাল্যবিয়ে করতে আসায় বরসহ তিনজনকে পাঠিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। এসময় আরো চারজনকে অর্থদণ্ড করা হয়েছে।

আজ শুক্রবার বেলা সাড়ে ১০টার দিকে কাহালু পৌর শহরের মহেশপুর এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মো. মাছুদুর রহমান।

আদালতে বাল্যবিয়ে করতে আসায় বর ও কনের ফুলাকে ছয় মাসের কারাদণ্ডাদেশ দিয়েছেন। একই সঙ্গে কাজিকে ছয় মাসের সাজা দিয়ে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এছাড়া বাল্যবিয়ের সহযোগিতা করার অভিযোগে চারজনের ১৫ হাজার টাকা অর্থদণ্ড করা হয়েছে।

জানা গেছে, শুক্রবার কাহালু পৌর শহরের মহেশপুর ভুতগাড়ী গ্রামের চতুর্থ শ্রেণির এক ছাত্রীর সঙ্গে পার্শ্ববর্তী নওগাঁ জেলার খয়রাবাত গ্রামের বেলাল হোসেনের ছেলে আব্দুল মোমিনের (৩০) বিয়ের দিনধার্য করা হয়। সরকারি নির্দেশনা না মেনে স্বস্থ্যবিধি উপেক্ষা করে গোপনে কনের ফুফার বাড়িতে সকালে চলছিল বিয়ের আয়োজন।

খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মো. মাছুদুর রহমান একদল পুলিশ নিয়ে বিয়ে বাড়িতে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান চালান।

ইউএনও বলেন, সরকারিভাবে সব সামাজিক অনুষ্ঠান না করার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। এরপরও গোপনে বিয়ের আয়োজন করা হয়েছিল। খবর পেয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে বরসহ তিনজনের কারাদণ্ড ও চারজনের জরিমানা করা হয়েছে।



সাতদিনের সেরা