kalerkantho

সোমবার  । ১২ আশ্বিন ১৪২৮। ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১৯ সফর ১৪৪৩

গুদাম কর্মকর্তার বিরুদ্ধে চাল 'চুরি'র অভিযোগ

পাথরঘাটা (বরগুনা) প্রতিনিধি   

৭ জুলাই, ২০২১ ২০:০৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গুদাম কর্মকর্তার বিরুদ্ধে চাল 'চুরি'র অভিযোগ

বরগুনার পাথরঘাটা সরকারি খাদ্য গুদাম থেকে চাল পাচারের অভিযোগ উঠেছে গুদামের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবুল কালামের বিরুদ্ধে। স্বজনদের মাধ্যমে সরকারি বস্তা পরিবর্তন করে বিভিন্ন বস্তায় ভরে বাজারজাত করেন বলেও জানান স্থানীয়রা।

চাল পাচারকালে আজ বুধবার বেলা ২টার দিকে ১১ বস্তা চাল জব্দ করে পাথরঘাটা উপজেলা প্রসাশনকে জানায় স্থানীয়রা। পরে বরগুনার নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তানভীর আহমেদ চালগুলো জব্দ করে পাথরঘাটা থানায় হস্তান্তর করেন।

স্থানীয় সাংবাদিক আকন মোহাম্মদ বশির জানান, বুধবার সকাল থেকে পাথরঘাটায় প্রচুর বৃষ্টি হওয়ার সুযোগকে কাজে লাগিয়ে খাদ্য গুদাম থেকে চাল পাচার হচ্ছে বলে তিনি জানতে পারেন। এরপর ঘটনাস্থলে গিয়ে বেলা ২টার দিকে ১১ বস্তা চালসহ দুটি অটোরিকশাকে আটকে দেন।

তিনি আরো জানান, সকাল থেকে মোট ৫২ বস্তা চাল খাদ্য গুদাম থেকে বের হয়েছে। এর মধ্যে তিনি ১১ বস্তা আটকাতে পেরেছেন।

চাল বহন করে নিয়ে যাওয়া অটোরিকশাচালক ইদ্রিস ও লিটু জানান, খাদ্য গুদামের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবুল কালামের চাচাশশুর রাসেল খাদ্য গুদাম থেকে ১১ বস্তা চাল এনে তাদের গাড়িতে উঠিয়ে বাজারে নিয়ে যাওয়ার জন্য ভাড়া করে। এর আগেও কয়েক গাড়িতে করে চাল খাদ্য গুদাম থেকে অন্য গাড়িতে বাজারে পাঠিয়েছে বলেও জানান তারা।

বরগুনার নির্বাহী ম্যাজিট্রেড তানভীর আহমেদ জানান, গুদাম থেকে চালগুলো বের করার কারণ অনুসন্ধান চলছে। এ বিষয়ে পাথরঘাটা থানায় রেগুলার আইনের আওতায় মামলা হবে।

তিনি জানান, খাদ্য গুদামের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবুল কালামের অনুপস্থিতি সন্দেহ অনেকটাই নিশ্চিত করেছে যে সে এ ঘটনায় জড়িত। 

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার পাথরঘাটা সার্কেল তোফায়েল হোসেন সরকার জানান, জব্দ চালগুলো থানায় রয়েছে। এ ছাড়া পাথরঘাটা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে দিয়েছেন। তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন পেলেই আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।



সাতদিনের সেরা