kalerkantho

বুধবার । ২০ শ্রাবণ ১৪২৮। ৪ আগস্ট ২০২১। ২৪ জিলহজ ১৪৪২

শরীয়তপুরে লকডাউন না মেনে জমজমাট গরুর হাট

শরীয়তপুর প্রতিনিধি   

২ জুলাই, ২০২১ ২০:২৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



শরীয়তপুরে লকডাউন না মেনে জমজমাট গরুর হাট

সরকারি বিধিনিষেধের মধ্যেও শরীয়তপুরের গোসাইরহাট উপজেলার 'দাসেরজঙ্গল গো-হাট' গরুর হাট বসেছে। শুক্রবার (০২ জুলাই) হাটে ক্রেতা–বিক্রেতার কাছে মাস্ক থাকলেও, অধিকাংশ ক্রেতা–বিক্রেতার মুখে-নাকে মাস্ক ছিল না। ছিল থুতনির নিচে। তবে প্রশাসনের লোক ও সাংবাদিক দেখলে তড়িঘড়ি করে মুখে মাস্ক পরছেন। স্বাস্থ্যবিধি মানার ব্যাপারেও উদাসীনতা দেখা গেছে। হাটে ক্রেতা-বিক্রেতাদের মধ্যে স্বাস্থ্যবিধি মানার কোনো বালাই ছিল না। গরুর হাট বসায় গোসাইরহাট পৌর এলাকার চিত্রও ছিল অনেকটাই স্বাভাবিক।

স্থানীয় বাসিন্দা ও গরুর হাটের ক্রেতা-বিক্রেতারা বলছে, প্রতি সপ্তাহের শুক্রবার দাসেরজঙ্গল গো-হাট বসে। এটি উপজেলার সবচেয়ে বড় গরুর হাট। করোনার সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ার পরেও প্রতি সপ্তাহ গরুর হাট চলমান রয়েছে। আজও যথারীতি গরুর হাট বসেছে।

এদিকে গরুর হাটকে কেন্দ্র করে পৌর এলাকায় নসিমন, ভ্যানসহ অন্যান্য ছোট যানবাহন বিনা বাধায় চলাচল করেছে। দাসেরজঙ্গল গো-হাটের ইজারাদার আব্দুল আউয়াল সরদার বলেন, স্বাস্থ্যবিধি মেনেই আমরা গরুর হাট বসিয়েছি। উপজেলা প্রশাসন অনুমতি না দিলেও, হাট বসাতে নিষেধ করেননি। যেহেতু গবাদিপশু কৃষিপণ্যের আওতাভুক্ত। তাই লকডাউনের ভিতরও গবাদিপশু বাজারজাত করা যাবে।

গোসাইরহাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. আলমগীর হুসাইন বলেন, এখানে প্রতি সপ্তাহে গরুর হাট বসে। আজও যথারীতি গরুর হাট বসেছে। হাটে সকালে দুইজন ম্যাজিস্ট্রেট ও পুলিশ সদস্যরা ছিল। হাটে বিধিনিষেধ না মানলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। 



সাতদিনের সেরা