kalerkantho

শনিবার । ৯ শ্রাবণ ১৪২৮। ২৪ জুলাই ২০২১। ১৩ জিলহজ ১৪৪২

পর্যটন নগরী কক্সবাজার ফাঁকা, মাঠে প্রশাসন

বিশেষ প্রতিনিধি, কক্সবাজার    

২ জুলাই, ২০২১ ১৫:৩৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পর্যটন নগরী কক্সবাজার ফাঁকা, মাঠে প্রশাসন

মহামারি করোনা পরিস্থিতি কঠিন হওয়ায় বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হওয়া লকডাউনের আজ দ্বিতীয় দিন শুক্রবার পর্যটননগরী কক্সবাজারের রাস্তা-ঘাট একেবারেই ফাঁকা। শহরের কোনো সড়কে লোকজনের  চলাচল নেই। যানবাহনেরও দেখা মিলছে না কোথাও।         

লকডাউন বাস্তবায়নে মাঠে রয়েছেন জেলা প্রশাসক মো. মামুনুর রশীদ ও পুলিশ সুপার মো হাসানুজ্জামানসহ অন্যান্য সরকারি কর্মকর্তারা। শহরের অলিতে-গলিতে টহল দিচ্ছে সেনাবাহিনী ও বিজিবি। মোড়ে মোড়ে রয়েছে পুলিশের চৌকি।

কক্সবাজারে লকডাউনের দ্বিতীয় দিনে সকাল থেকে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পাশাপাশি সেনাবাহিনী, বিজিবি ও র‌্যাব সদস্যদেরও টহল দিতে দেখা গেছে।

চলমান লকডাউন অমান্য করে প্রথম দিন বৃহস্পতিবার অযৌক্তিক কারণে বাইরে বের হওয়ার অভিযোগে ১৬১টি মামলায় ১৭২ জনকে দণ্ডিত করা হয় এবং ৯১ হাজার টাকারও বেশি জরিমানা গুনতে হয়। প্রথম দিনে কক্সবাজার শহরে জেলা প্রশাসনের ৫০টি অভিযান পরিচালনা হয় বলে নিশ্চিত করেছেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সাদিয়া সোলতানা।

করোনায় দেশে গত ছয় মাসে মারা গেছে ছয় হাজার ৯৪৪ জন। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি মারা গেছে গত এপ্রিল মাসে। দেশে শনাক্তের বিপরীতে এখনো পর্যন্ত মৃতের হার ১ দশমিক ৫৯ শতাংশ। আর বৃহস্পতিবার (১ জুলাই) এ যাবৎকালের সর্বাধিক ১৪৩ জনের মৃত্যুর কথা জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

লকডাউনে বিনা প্রয়োজনে বাসা থেকে বের ও দোকানপাট খোলা রাখা সম্পূর্ণ বন্ধ। শুধু প্রয়োজনীয় ওষুধের জন্য ফার্মেসি ও খাবার পার্সেল নেওয়ার জন্য সীমিত পরিসরে রেস্টুরেন্ট খোলার অনুমতি রয়েছে।

কক্সবাজার জেলা প্রশাসন থেকে জানানো হয়েছে, আজ শুক্রবারসহ পরবর্তী সিদ্ধান্ত না হওয়া পর্যন্ত কঠোর লকডাউন ও অভিযান অব্যাহত থাকবে।



সাতদিনের সেরা