kalerkantho

রবিবার । ৪ আশ্বিন ১৪২৮। ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১১ সফর ১৪৪৩

বাকৃবি পেল ৩৬০ কোটি টাকার বাজেট

বাকৃবি প্রতিনিধি   

১ জুলাই, ২০২১ ১৩:৩৬ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বাকৃবি পেল ৩৬০ কোটি টাকার বাজেট

বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বাকৃবি) ২০২১-২০২২ অর্থবছরের জন্য ৩৬০ কোটি ৩৫ লক্ষ টাকার  বাজেট অনুমোদন করা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক ২০২১-২০২২ অর্থবছরের জন্য প্রণীত চাহিদা বাজেটে ৩৭৭ কোটি ৮৪ লক্ষ ১৬ হাজার টাকা প্রদর্শন করা হলেও বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন (বিমক) কর্তৃক উহার বিপরীতে ৩৪৫ কোটি ৫৫ লক্ষ টাকার সিলিং নির্ধারণ করে দেয়া হয়েছে। কমিশন কর্তৃক নির্ধারিত সিলিংয়ের মধ্যেই বাজেট রিকাস্ট করা হয়েছে। 

২০২১-২০২২ অর্থ বছরের মূল রিকাস্ট বাজেটে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন (বিমক) কর্তৃক সরকারি অনুদান হিসাবে ৩৪৫ কোটি ৫৫ লক্ষ টাকা, বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব সূত্র থেকে আয় হিসাবে ১৪ কোটি ৮০ লক্ষ টাকাসহ সর্বমোট আয় হিসাবে ধার্য করা করা হয়েছে ৩৬০ কোটি ৩৫ লক্ষ টাকা। উক্ত বাজেটে বেতন-ভাতাদি খাতে ১৭২ কোটি ৫০ লক্ষ টাকা, পণ্য ও সেবা বাবদ সহায়তা (সাধারণ) খাতে ৩৬ কোটি ৪৯ লক্ষ টাকা, পণ্য ও সেবা বাবদ সহয়তা (মেরামত) খাতে ৮ কোটি ২৮ লক্ষ টাকা, পেনশন ও অবসর সুবিধা বাবদ ১২৮ কোটি ৪৪ লক্ষ টাকা, গবেষণা অনুদান ৯ কোটি টাকা, অন্যান্য অনুদান হিসেবে ২ কোটি ৬ লক্ষ টাকা এবং মূলধন অনুদান ৩ কোটি ৫৮ লক্ষ টাকাসহ সর্বমোট ৩৬০ কোটি ৩৫ লক্ষ টাকা ধার্য করা হয়েছে। এ ছাড়াও ২০২০-২০২১ অর্থ বছরের সংশোধিত রিকাস্ট বাজেটে সর্বমোট ব্যয় বরাদ্দ ৩৪৮ কোটি ২৩ লক্ষ টাকা ধার্য করা হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা গেছে, বাকৃবি উপাচার্য প্রফেসর ড. লুৎফুল হাসানের সভাপতিত্বে গত ২৯ জুন  ফাইন্যান্স কমিটির বাজেট অধিবেশনে বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ মো. রাকিব উদ্দিন ২০২১-২০২২ অর্থবছরের মূল রিকাস্ট বাজেট এবং ২০২০-২০২১ অর্থ বছরের সংশোধিত রিকাস্ট বাজেট উপস্থাপন করেন।

বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন কর্তৃক ধার্যকৃত সিলিং অনুযায়ী প্রণীত ২০২১-২০২২ অর্থ বছরের মূল রিকাস্ট বাজেটে ২০২০-২০২১ অর্থ বছরের সংশোধিত রিকাস্ট বাজেটের তুলনায় বরাদ্দের পরিমাণ ০.৭৭% (প্রায়) মাত্র হ্রাস পেয়েছে, যার মাধ্যমে আগামী অর্থবছরের শিক্ষা কার্যক্রম স্বাভাবিক পর্যায়ে রাখতে বেগ পেতে হবে বিধায় ২০২১-২০২১২ অর্থবছরের সংশোধিত বাজেট প্রণয়নকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের বাস্তব চাহিদা অনুযায়ী বরাদ্দ নির্ধারণের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি অনুরোধ রাখা হয়।



সাতদিনের সেরা