kalerkantho

রবিবার । ৪ আশ্বিন ১৪২৮। ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১১ সফর ১৪৪৩

নোবিপ্রবি ও রাবিপ্রবি'র মধ্যে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর

নোবিপ্রবি প্রতিনিধি    

২৯ জুন, ২০২১ ০০:২২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নোবিপ্রবি ও রাবিপ্রবি'র মধ্যে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর

নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (নোবিপ্রবি) ও রাঙ্গামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবিপ্রবি) মধ্যে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর হয়েছে। 

সোমবার (২৮ জুন) অনলাইন প্লাটফর্ম জুমে এ সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর হয়। এতে নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষে স্বাক্ষর করেন রেজিস্ট্রার (অতিরিক্ত দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. মো. আবুল হোসেন ও রাবিপ্রবির পক্ষে স্বাক্ষর করেন রেজিস্ট্রার অঞ্জন কুমার চাকমা।

জানা যায়, সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরের মধ্য দিয়ে দুই বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে যৌথ গবেষণা ও মাঠ পরিদর্শন, তথ্য ও ধারণার বিনিময়, শিক্ষক-কর্মকর্তা-শিক্ষার্থীদের প্রশিক্ষণের সুযোগ প্রদান, শিক্ষক-শিক্ষার্থী বিনিময়, পারস্পরিকভাবে সম্মত বিভিন্ন ক্ষেত্রে সহযোগিতা, গবেষণাগারের সুযোগ সুবিধার পারস্পরিক বিনিময় এবং সাংস্কৃতিক বিনিময় এ সাতটি ক্ষেত্রে দুই বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে সহযোগিতা বৃদ্ধি পাবে। 

স্মারক স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন নোবিপ্রবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. দিদার-উল-আলম ও কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মো. ফারুক উদ্দিন। আরো উপস্থিত ছিলেন নোবিপ্রবির বিভিন্ন অনুষদের ডীন, ইনস্টিটিউটের পরিচালকসহ শিক্ষক ও কর্মকর্তারা। রাঙ্গামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালের উপাচার্য অধ্যাপক ড. প্রদানেন্দু বিকাশ চাকমা, রেজিস্ট্রার অঞ্জন কুমার চাকমা, প্রক্টর, পরিচালক ও অন্যান্য শিক্ষক-কর্মকর্তারা।

ভার্চুয়াল সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে রাবিপ্রবি উপাচার্য ড. প্রদানেন্দু বিকাশ চাকমা বলেন, 'সমঝোতা স্বাক্ষর অনুষ্ঠানের মাধ্যমে পারস্পরিক সহযোগিতা, অভিজ্ঞতা বিনিময়, যৌথ উদ্যোগে গবেষণা পরিচালনা, একচেঞ্জ অ্যান্ড এক্সপোজার ভিজিট এবং আমাদের নিজেদের বেস্ট প্র্যাকটিসগুলো শেয়ার করব আমরা। এ চুক্তির মাধ্যমে আমাদের দুইটি বিশ্ববিদ্যালয়ের পারস্পরিক সহযোগিতা উত্তরোত্তর বৃদ্ধি পাবে।

নোবিপ্রবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. দিদার-উল-আলম বলেন, আমরা শিক্ষার্থী বিনিময় করে দুই বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে সমতা ও ভ্রাতৃত্ব স্থাপন করব। একইসঙ্গে দুই বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে সময়ের সঙ্গে সঙ্গে পলিসি একচেঞ্জ হবে এবং উন্নয়ন সহযোগিতা বৃদ্ধি পাবে। বক্তৃতায় তিনি দুই বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে গবেষণা ক্ষেত্রে পারস্পরিক সহযোগিতার ওপর বেশি গুরুত্বারোপ করেন।

উল্লেখ্য, স্বাক্ষরিত সমঝোতা স্মারকে নোবিপ্রবির পক্ষে ফোকাল পয়েন্ট হিসেবে থাকবেন নোবিপ্রবির শিক্ষা বিজ্ঞান অনুষদর ডীন অধ্যাপক ড. নেওয়াজ মোহাম্মদ বাহাদুর এবং সহকারী রেজিস্ট্রার আবু জুবায়ের।

রাবিপ্রবির পক্ষে ফোকাল পয়েন্ট হিসেবে থাকবেন কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সহকারী অধ্যাপক জুয়েল শিকদার ও সহকারী রেজিস্ট্রার সেতু চাকমা।



সাতদিনের সেরা