kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৯ শ্রাবণ ১৪২৮। ৩ আগস্ট ২০২১। ২৩ জিলহজ ১৪৪২

কোরবানির জন্যই নাম রাখা হলো 'ত্যাগ', দাম ৭ লাখ

দিনাজপুর প্রতিনিধি   

২৫ জুন, ২০২১ ১৮:৩০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কোরবানির জন্যই নাম রাখা হলো 'ত্যাগ', দাম ৭ লাখ

দিনাজপুর সদর উপজেলার উত্তর শিবরামপুর গ্রামের বাসিন্দা আকবর আলী। পেশায় তিনি একজন ওষুধ কম্পানির প্রতিনিধি। আড়াই বছর আগে শখ করে এক বছরের একটি ফ্রিজিয়ান জাতের বাছুর কিনে আনেন। এরপর থেকে পালন করতে থাকেন নিজ বাসায়। গরুটি বিশাল আকারের ষাঁড়ে পরিণত হয়। তার নাম রাখা হয় “ত্যাগ”। কারণ এই ষাঁঢ়টি যারা কিনবেন তারা কোরবানির উদ্দেশেই কিনবেন। ত্যাগের ওজন প্রায় ১৭ মণ। ঈদে বিক্রির জন্য দাম হাকানো হয়েছে ৭ লাখ টাকা। 

ফ্রিজিয়ান জাতের ষাঁড়টির উচ্চতা পাঁচ ফুট চার ইঞ্চি, লম্বায় সাড়ে ১১ ফুট। সম্ভবত জেলার মধ্যে সবচেয়ে বড় ফ্রিজিয়ান জাতের ষাঁড় হলো ত্যাগ।

আকবর আলী জানান, করোনাভাইরাসের কারণে গ্রাহক পাওয়া যাচ্ছে না। গরুটি ৭ লাখ টাকায় বিক্রি করতে পারলে কিছুটা লাভবান হতে পারবেন তিনি। এ বছর কিছুটা লাভ হলে আগামীতে ত্যাগের মতো আরো গরু পালন করব। তবে এখন পর্যন্ত সে রকম কোনো গ্রাহকের সাড়া পাওয়া যায়নি।

তিনি বলেন, লালন পালন করতে গিয়ে তিনি ষাঁড়টিকে কোনো প্রকার মেডিসিন প্রয়োগ করেননি। বাজারে যেসব গোখাদ্য পাওয়া যায় এবং প্রাকৃতিক খাবার সংগ্রহ করে খাইয়েছেন।

গরুর নাম “ত্যাগ” রাখা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, পবিত্র ঈদ-উল আযহা অর্থাৎ কোরবানি ঈদ হলো ত্যাগ করা। তাই কোরবানি ঈদের জন্য তার নাম ত্যাগ রাখা হয়েছে। 



সাতদিনের সেরা