kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২১ শ্রাবণ ১৪২৮। ৫ আগস্ট ২০২১। ২৫ জিলহজ ১৪৪২

রূপকথার গল্প বাস্তবায়ন করলেন শেখ হাসিনা

মাহবুব আলম, ছাতক   

২৫ জুন, ২০২১ ১৬:৩১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রূপকথার গল্প বাস্তবায়ন করলেন শেখ হাসিনা

ছাতকের নোয়ারাই ইউনিয়নের বাসিন্দা অন্ধ ভিক্ষুক গেদু মিয়া। রূপকথায় শুনেছিলেন জাদুর কাঠির ছোঁয়ায় মুহূর্তেই বদলে যায় গল্পের মানুষের জীবনযাত্রা। কাচা ঘর থেকে রাজপ্রাসাদ হয়ে যায় সেই জাদুতে। ঠিক একই রকম প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বদৌলতে ঝুপড়ি ঘর থেকে পাকাঘর পেয়েছেন তিনি। সেই সাথে ভিক্ষাবৃত্তি ছেড়ে দেওয়ার জন্য বাচ্চাসহ গাভী পেয়ে স্বপ্নের মতো লাগছে তার।

সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসক জাহাঙ্গীর হোসেনের কাছ থেকে বাচ্চাসহ একটা গরু পেয়ে প্রতিবেদকের কাছে এমনই অভিব্যক্তি প্রকাশ করেন তিনি।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে আশ্রায়ণ প্রকল্প-২ এর আওতায় ছাতকে গৃহহীন ও ভূমিহীনদের জন্য নির্মিত একই রকমের ১৬৪ ঘরের বাসিন্দাদের মধ্যে গেদু মিয়ার মতো ঘরের সাথে বাচ্চাসহ গাভী পেয়েছেন পঙ্গুত্ববরণকারী আজিবুন নেসা, প্রতিবন্ধী দেলোয়ার হোসেন, শুকুর আলী ও হাজেরা বেগম।

তারা জানান, ছাতক উপজেলা নির্বাহী অফিসার মামুনুর রহমান ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) তাপশ শীলের মাধ্যমে সম্পূর্ণ বিনামূল্যে জমিসহ পাকা ঘরের মালিকানা পেয়েছেন।

এখন বাচ্চাসহ একটা গরু পেয়েছেন। অফিসাররা জানিয়েছেন, এগুলো তাদেরকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উপহার হিসাবে দিয়েছেন। উপকারভোগীরা জানান, প্রধানমন্ত্রীর উপহার পেয়ে তাদের সামাজিক মর্যাদা বৃদ্ধি পেয়েছে। এজন্য তারা শেখ হাসিনার কাছে চিরকৃতজ্ঞ।

ছাতক উপজেলা নির্বাহী অফিসার মামুনুর রহমান জানান, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষ উপলক্ষে গৃহহীনদের জন্য এটা প্রধানমন্ত্রীর অগ্রাধিকার প্রকল্প। বুধবার প্রাথমিক পর্যায়ে এখানকার পাচঁজন ভিক্ষুককে সহায়তা দেওয়া হয়েছে। পর্যায়ক্রমে সবাইকে ভিবিন্নভাবে সহায়তার আওতায় আনা হবে।

সুনামগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য মুহিবুর রহমান মানিক জানান, পৃথিবীর কোনো দেশেই এভাবে একসঙ্গে এতো মানুষকে বাসস্থানের সুযোগ করে দেওয়ার নজির নেই। বঙ্গবন্ধু কন্যা ক্ষমতায় আছেন বলেই এটা সম্ভব হচ্ছে। যারা ঘরগুলো পেয়েছে তাদের সামাজিক নিরাপত্তা রক্ষার জন্য আওয়ামী লীগের স্থানীয় নেতৃবৃন্দের প্রতি তিনি আহ্বান জানান।



সাতদিনের সেরা