kalerkantho

রবিবার । ১০ শ্রাবণ ১৪২৮। ২৫ জুলাই ২০২১। ১৪ জিলহজ ১৪৪২

১০০ মানুষকে কামড়িয়েছে একটি কুকুর!

কাজিপুর (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি   

২৪ জুন, ২০২১ ১৬:৩৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



১০০ মানুষকে কামড়িয়েছে একটি কুকুর!

ট্রাকচালক দুলাল মিয়া রাত ৯টায় বাড়ির পাশে ট্রাক রেখে বাড়িতে ঢুকছিলেন। এমন সময় কালো রঙের একটি কুকুর কোন প্রকার আওয়াজ না করে দৌড়ে এসে তার ডান পায়ে কামড়ে দেয়। পরদিন সন্ধ্যায় ওই রাস্তায় পাঁচ বছরের এক শিশুকে কামড় দেয় ওই কুকুর। এমন করে গত এক মাসে বৃদ্ধ, শিশু, পথচারীদের কামড়িয়েছি পাগলা কুকুর। এ নিয়ে সিরাজগঞ্জের কাজিপুর উপজেলার চালিতাডাঙ্গা ইউনিয়নের হাটশিরা পশ্চিমপাড়া এলাকায় চলছে 'কুকুর আত্ঙ্ক'।

সরেজমিন গিয়ে জানা যায়, বছর তিনেক আগেও একটি কুকুর এভাবে মানুষকে কামড়িয়েছিল। সেই কুকুরটি মেরে ফেলে গ্রামবাসী। সম্প্রতি আরো একটি বেওয়ারিশ কুকুর প্রতিদিনই কাউকে না কাউকে কামড়াচ্ছে।

হাটশিরা পশ্চিম পাড়া গ্রামের শাহজামাল জানান, কুকুরটি সন্ধ্যার পর থেকে নয়টার মধ্যেই মানুষকে বেশি হামলা করে। বিশেষ করে নামাজে যাওয়ার সময়। কিছুদিন আগে তাকে মেরে ফেলার জন্য লোকজন লাঠিসোঁটা নিয়ে প্রস্তুতি নিয়েছিলো। কিন্তু দৌড়ে কুকুরটি পালিয়ে যায়।

ওই গ্রামের যুবক সোনার উদ্দিন বলেন, আমাকে দুই বার কামড়িয়েছে। সিরাজগঞ্জ সদর হাসপাতালে গিয়ে ভ্যাকসিন দিয়েছি দুইবারই।

কৃষক মিজানুর রহমান বলেন, সন্ধ্যায় বাড়ি থেকে বের হয়ে বাজারের দিকে যাচ্ছিলাম। কোন প্রকার শব্দ না করে কোথা থেকে দৌড়ে এসে আমাকে পিছন থেকে আক্রমণ করে। কোন কিছু বুঝে ওঠার আগেই ডান পায়ে দাত বসিয়ে চলে যায়।

মুদি দোকানী আব্দুস সালাম বলেন, ওই কুকুরটি আমাকেসহ আরো গত এক মাসে কমপক্ষে ১০০ জনকে কামড়িয়েছে। তাকে মেরে ফেলার চেষ্টা করেও আমরা ব্যর্থ হয়েছি।

চালিতাডাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আতিকুর রহমান মুকুল বলেন, বিষয়টি জেনেছি। ইউএনও স্যারের সঙ্গে কথা বলে উপজেলা ফায়ার সার্ভিসকে দিয়ে কুকুরটিকে মেরে ফেলার ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

কাজিপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাহিদ হাসান সিদ্দিকী জানান, কুকুরটির অবস্থান নিশ্চিত করে মেরে ফেলা হবে। শিগগিরই এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। এক্ষেত্রে স্থানীয়দের সহযোগিতা প্রয়োজন।



সাতদিনের সেরা