kalerkantho

শুক্রবার । ১৫ শ্রাবণ ১৪২৮। ৩০ জুলাই ২০২১। ১৯ জিলহজ ১৪৪২

নামাজে দাঁড়ানো অবস্থায় শিক্ষককে পিটিয়ে হত্যা : শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন

মাগুরা প্রতিনিধি   

২১ জুন, ২০২১ ১৯:০৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নামাজে দাঁড়ানো অবস্থায় শিক্ষককে পিটিয়ে হত্যা : শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন

মাগুরার মহম্মদপুর উপজেলায় মসজিদের ভেতর নামাজে দাঁড়ানো অবস্থায় শিক্ষক আলাউদ্দিন ওরফে পাখি মাস্টার হত্যার প্রতিবাদে খুনিদের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন করেছেন শিক্ষকরা। আজ সোমবার সকালে মহম্মদপুর উপজেলা সদরের বাসস্ট্যান্ড এলাকায় এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। 

মানববন্ধন শেষে শিক্ষকরা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রামানন্দ পালের কাছে স্মারকলিপি দেন। এ ঘটনায় নিহত শিক্ষক আলাউদ্দিনের স্ত্রী শাহিদা বেগম বাদী হয়ে ছয়জনের নাম উল্লেখ করে মহম্মদপুর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। এরই মধ্যে হত্যাকাণ্ডের প্রধান আসামিসহ তিনজনকে আটক করেছে পুলিশ।

মহম্মদপুর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষক পরিবারের আয়োজনে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন মহম্মদপুর প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি এম রেজাউল করিম চুন্নু, প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক শরীফ মাহাবুবুর রহমান, মহম্মদপুর সরকারি আরএসকেএইচ ইনস্টিটিউশনের প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ নাসিরুর ইসলাম, মহম্মদপুর শিক্ষক কর্মচারী সমিতির সভাপতি ইউনুস আলী সরদার, সাধরণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম।

মহম্মদপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তারক বিশ্বাস বলেন, এ ঘটনায় একটি হত্যা মামলা হয়েছে এবং তিনজনকে আটক করে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। এলাকায় অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

এর আগে শনিবার বিকালে জমিজমা নিয়ে পূর্ব বিরোধের জের ধরে পলাশবাড়ি গ্রামের একটি মসজিদের ভেতর শিক্ষক আলাউদ্দিনকে প্রতিপক্ষের লোকজন নির্মমভাবে কুপিয়ে ও পিটিয়ে জখম করে। ফরিদপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার রাত ১১টায় তিনি মারা যান। নিহত শিক্ষক আলাউদ্দিন মহম্মদপুর উপজেলার পলাশবাড়ীয়া গ্রামের মৃত আব্দুল হক মোল্যার ছেলে ও পলাশবাড়ীয়া পূর্বপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক ছিলেন।



সাতদিনের সেরা