kalerkantho

শুক্রবার । ১৫ শ্রাবণ ১৪২৮। ৩০ জুলাই ২০২১। ১৯ জিলহজ ১৪৪২

চা বিক্রেতাকে সরিয়ে সওজের জায়গায় প্রভাবশালীর ঘর নির্মাণ!

আঞ্চলিক প্রতিনিধি, ময়মনসিংহ    

১৯ জুন, ২০২১ ১৩:০৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চা বিক্রেতাকে সরিয়ে সওজের জায়গায় প্রভাবশালীর ঘর নির্মাণ!

ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলার হেমগঞ্জ বাজার নামক স্থানে সরকারি জায়গায় স্থায়ী ঘর নির্মাণ করছেন এক প্রভাবশালী। এ ঘটনায় স্থানীয় ভূমি অফিসের ভূমি সহকারী কর্মকর্তা বাধা দিলেও কোনো কাজে আসেনি।

জায়গাটির অবস্থান ময়মনসিংহ-কিশোরগঞ্জ মহাসড়কের নান্দাইল উপজেলার হেমগঞ্জ বাজারের পাশে।

স্থানীয় সূত্র জানায়,সড়ক ও জনপথ (সওজ) বিভাগের এই জায়গাটির আশপাশের অনেক খালি জায়গায়ই ইতোমধ্যে স্থায়ী-অস্থায়ী দোকানঘর নির্মাণ হয়েছে। স্থানীয় প্রভাবশালীরা এসব ঘর নির্মাণ করে ভাড়া দিয়েছেন। এতদিন যেসব দুর্বল ও অসহায় মানুষ এসব জায়গায় অস্থায়ীভাবে ব্যবসা করে আসছিলেন তাঁদেরকে সরিয়ে এক শ্রেণির প্রভাবশালী নিজেদের কব্জায় নিয়ে স্থায়ীভাবে ঘর নির্মাণ করে দখলে নিয়েছেন।

আজ শনিবার (১৯ জুন) সকালে সরেজমিনে দেখা যায় ইট, সিমেন্ট ও রড দিয়ে তৈরি ঘরের ওপর রঙিন টিনের ছাউনি দেওয়া হয়েছে। প্রায় সম্পন্নের পথে দোকান ঘরটি।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, এই জায়গাটিতে গত প্রায় পাঁচ বছর ধরে অস্থায়ীভাবে চা বিক্রি করে সংসার চালাতেন গোলাপ মিয়া নামের এক ব্যক্তি। হঠাৎ জায়গাটিতে ইট, রড সিমেন্টের গাঁথুনি সবার নজর কাড়ে। পরে জানা যায় স্থানীয় এক প্রভাবশালীর হস্তক্ষেপে জায়গাটির দখল বিক্রি হয়। আর কিনে নেন ওমান প্রবাসী উবায়দুল্লাহ।

প্রায় অর্ধলক্ষাধিক টাকার বিনিময়ে ওই প্রভাবশালী ঘর নির্মাণ করে দিচ্ছেন। এ খবর পেয়ে গত চার দিন আগে ঘটনাস্থলে যান নান্দাইল সদর ইউনিয়ন ভূমি অফিসের নায়েব মো. মোনায়েম হোসেন। তিনি ঘর নির্মাণে বাধাও দেন। কিন্তু তা না মেনে অব্যাহত রয়েছে ঘর নির্মাণ।

এ ব্যাপারে সড়ক ও জনপথ বিভাগের উপসহকারী প্রকৌশলী বাবুল হোসেন জানান, তিনি ঘটনা জেনে ফোন করে খোঁজ খবর নিয়েছেন। শরীরটা একটু খারাপ থাকায় ঘটনাস্থলে যেতে পারেননি। তবে অচিরেই খোঁজ নেবেন।



সাতদিনের সেরা