kalerkantho

শনিবার । ৯ শ্রাবণ ১৪২৮। ২৪ জুলাই ২০২১। ১৩ জিলহজ ১৪৪২

ইউপি নির্বাচন

ইসলামী আন্দোলনের চেয়ারম্যান প্রার্থীর ওপর হামলার অভিযোগ, আহত ৬

বরিশাল অফিস   

১৭ জুন, ২০২১ ০৮:২২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ইসলামী আন্দোলনের চেয়ারম্যান প্রার্থীর ওপর হামলার অভিযোগ, আহত ৬

বরিশাল সদর উপজেলার জাগুয়া ইউনিয়নের ইসলামী আন্দোলনের মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থীর উপর হামলার অভিযোগ উঠেছে। হামলায়  ইসলামী আন্দোলনের প্রার্থীসহ ৬ জন আহত হয়েছে। 

বুধবার (১৬ জুন) রাতে ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের খয়েরদি গ্রামে প্রচার-প্রচারণার সময় আওয়ামী লীগের প্রার্থী ও তার অনুসারীরা হামলা চালায় বলে অভিযোগ করেন প্রার্থী হেদায়াতুল্লাহ খান আজাদী। 

আহতরা হলেন- ইসলামী আন্দোলনের প্রার্থী হেদায়াতুল্লাহ খান আজাদী, তার কর্মী সাইদুল ইসলাম, রাকিব মাহামুদ, সজল তালুকদার এবং শরীয়তুল্লাহ। আহতদের বরিশাল শের ই বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

জাগুয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বচনে ইসলামী আন্দোলনের হাতপাখা প্রতীকের প্রার্থী হেদায়াতুল্লাহ খান আজাদী বলেন, জাগুয়া ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের খয়েরদি গ্রামে গনসংযোগ শেষে ফেরার সময় আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী দিদারুল আলম শাহীন ১৫ থেকে ২০টি মোটরসাইকেলযোগে ঘটনাস্থলে এসে  আমাদের উপর হামলা চালায়। এসময় তাদের হাতে হকিস্টিক, লাঠি, ছুরি, রাম দা এবং ক্রিকেট স্ট্যাম্প ছিলো। তারা আমার কর্মীদের পিটিয়ে ও কুপিয়ে রক্তাক্ত করেছে।

আমার কর্মী সাইদুল ইসলামের অবস্থা গুরুত্বর। তার মাথায়, বুকে ও শরীরের অন্যান্য অংশে আঘাত করা হয়েছে। এছাড়া আমার আপন ছোট ভাই শরীয়তুল্লাহ, চাচাতো ভাই রাকিব মাহামুদ ও চাচা সজল তালুকদারকে কোপানো হয়েছে। এছাড়া আমাদের হ্যান্ড মাইক এবং আমাদের সাথে থাকা হাত পাখাগুলো নিয়ে গেছে দিদারুল আলম শাহীন ও তার লোকজন। পরে পুলিশে খবর দেয়া হলে তারা ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি শান্ত করেছে। 

জাগুয়া ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান মোস্তাক আলম চৌধুরী বলেন, নৌকা আর হাতপাখা সমর্থকদের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার খবর শুনেছি। তবে বিস্তারিত কিছু জানি না। 

আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী দিদারুল আলম শাহীনকে মুঠোফোনে একাধিক বার কল করা হলেও তিনি রিসিভ না করায় তার বক্তব্য পাওয়া যায়নি। 

বরিশাল কোতয়ালী মডেল থানার উপ পরিদর্শক মাহফুজুর রহমান জানান, খবর পাওয়ার সাথ সাথে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে আহতদের উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য শেরে বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়েছে। এ ঘটনায় থানায় কোন অভিযোগ দেওয়া হয়নি। লিখিত অভিযোগ পেলেই আভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। 



সাতদিনের সেরা