kalerkantho

শনিবার । ৯ শ্রাবণ ১৪২৮। ২৪ জুলাই ২০২১। ১৩ জিলহজ ১৪৪২

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে চাকরি না দেওয়ার প্রতিবাদে কক্সবাজারে মানববন্ধন

বিশেষ প্রতিনিধি, কক্সবাজার   

১৭ জুন, ২০২১ ০৫:১৮ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



রোহিঙ্গা ক্যাম্পে চাকরি না দেওয়ার প্রতিবাদে কক্সবাজারে মানববন্ধন

কক্সবাজারের রোহিঙ্গা শিবিরে বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা (এনজিও)গুলোতে স্থানীয়দের চাকরি না দেওয়াসহ এনজিও কর্মকর্তাদের অশোভন আচরণের প্রতিবাদে বুধবার (১৬ জুন) স্থানীয় চাকরি প্রাথীরা মানববন্ধন করেছে। উখিয়ার পালংখালী ইউনিয়নের  হাকিম পাড়ায় ব্র্যাক অফিসের সামনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

বুধবার উখিয়ার থাইংখালীর হাকিমপাড়াস্থ ব্র্যাক অফিসের সামনে ও হাকিম পাড়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পের প্রবেশমুখে স্থানীয় চাকরি প্রার্থী অর্ধ শতাধিক যুবক প্লেকার্ড ফেস্টুন হাতে নিয়ে মানববন্ধনে অংশ নিয়ে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছে।

তাঁরা হাকিমপাড়া ব্র্যাক অফিসের ম্যানেজার রাশেদের অপসারণ এবং চাকরির ক্ষেত্রে স্থানীয়দের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে নিয়োগের দাবি জানান। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত অবস্থান কর্মসূচি চালিয়ে যাবেন বলে হুঁশিয়ারি দেন আন্দোলনকারীরা।

এসময় স্থানীয় ইউপি সদস্য নুরুল আমিন আন্দোলনকারীদের সঙ্গে নিয়ে ব্র্যাকের হাকিমপাড়া অফিসের কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠকে বসে স্থানীয়দের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে চাকরিতে নিয়োগ দেওয়ার দাবি তুলেন।

চাকরি প্রার্থীদের পক্ষে মো. ইব্রাহিম, ছাত্রলীগের নেতা আজিজ জানান, ব্র্যাক সম্প্রতি সময় ভলান্টিয়ারস পদে ৮০ জনের একটি নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে। আবেদন জমা দেওয়া এসএসসি পাস ওইসব চাকরি প্রার্থীদের বাদ দিয়ে উখিয়া উপজেলার বাইরের লোকজন এনে নিয়োগ চূড়ান্ত করে। জানতে পেরে স্থানীয় বেকার অভিজ্ঞ কয়েকজন যুবক ব্র্যাক ম্যানেজার রাশেদের নিকট গেলে তাদের সঙ্গে অসৌজন্যমূলক আচরণ করে বলে জানান।

যুবনেতা রুহুল তানবির অভিযোগ করে জানান, এনজিওগুলোতে স্থানীয়দের না দিয়ে  রোহিঙ্গাদেরও অনেক নিয়োগ দিয়েছে। তিনি অভিযোগ করেন, শুধু স্থানীয়দের বেলায় অভিজ্ঞতা আর লেখাপড়ার অজুহাত তোলা হয়। নিম্ন পদে চাকরি করতে ইচ্ছুক শত শত প্রার্থী রয়েছে, যারা এসএসসি ও এইচএসসি পাস। তাদের কেন চাকরি হবে না। আমরা ক্ষতিগ্রস্ত স্থানীয় জনগোষ্ঠী। আমাদের অগ্রাধিকার দিতে হবে।

অধিকার বাস্তববায়ন কমিটি পালংখালীর আহবায়ক ইঞ্জিনিয়ার রবিউল হোছাইন বলেছেন, ব্র্যাক ৮০ জন ভলান্টিয়ারস নিয়োগ দিচ্ছে। তাতে স্থানীয় নাকি ৫ জন নেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। এটিও স্থানীয়দের সঙ্গে প্রতারণা। হাকিমপাড়া ও তৎলাগোয়া কয়েকটি ক্যাম্পে ৮০ জন কর্মী নেবে আর হাকিমপাড়া থেকে নাকি ৫ জন নেবে। তাহলে কি ৭৫ জন বাইরের এলাকা থেকে আমদানি করবে? তাদের দাবি  অন্তত ৮০ জনের মধ্যে অর্ধেক করে হলেও নেওয়া হউক।

যোগাযোগ করা হলে কনর্সান ওয়ার্ল্ডওয়াইডের হাকিমপাড়া ক্যাম্পে দায়িত্বরত এক নারী কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান, স্থানীয় কিছু নারীকর্মী নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে। তাতে অভিজ্ঞতার আলোকে স্থানীয়দের নিয়োগ দিতে আলোচনা চলছে।

ব্র্যাকের হাকিমপাড়া ক্যাম্পের দায়িত্বরত ম্যানেজার রাশেদের নিকট তার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি অভিযোগ অস্বীকার করে এড়িয়ে যান এবং পরে কথা বলব, স্থানীয়দের নিয়ে বৈঠক চলছে বলে জানান। চাকরির ক্ষেত্রে স্থানীয়দের অভিজ্ঞতার আলোকে নিয়োগ দেওয়া হবে বলেও তিনি আশ্বস্ত করেন।

তবে আন্দোলনকারীরা তাদের দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত শান্তিপূর্ণ অবস্থান কর্মসূচি চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেন।



সাতদিনের সেরা