kalerkantho

বুধবার । ২০ শ্রাবণ ১৪২৮। ৪ আগস্ট ২০২১। ২৪ জিলহজ ১৪৪২

মহাসড়কে চাঁদা তুলছিলেন তারা, ভ্রাম্যমাণ আদালতে সাজা

আঞ্চলিক প্রতিনিধি, ময়মনসিংহ   

১৫ জুন, ২০২১ ১৫:০৩ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মহাসড়কে চাঁদা তুলছিলেন তারা, ভ্রাম্যমাণ আদালতে সাজা

ময়মনসিংহ-কিশোরগঞ্জ মহাসড়ক ছাড়াও আঞ্চলিক সড়কগুলোর বিভিন্ন জায়গায় নানাবিধ অজুহাত তুলে যানবাহন আটকিয়ে চাঁদা তুলত একদল চাঁদাবাজ। এতে প্রতিবাদ করলে তাদের হাতে মারধরের ঘটনাও ঘটছে। আজ মঙ্গলবার ঈশ্বরগঞ্জ মুক্তিযোদ্ধা চত্বর ও কাঁচামাটিয়া সেতু এলাকায় প্রকাশ্যে চাঁদা তোলার সময় দুই চাঁদাবাজকে আটক করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও প্রথম শ্রেণির ম্যাজিস্ট্রেট। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে দুজনকে ১৫ দিন করে বিনাশ্রম কারাদণ্ডের আদেশ দেওয়া হয়। আজ দুপুরে তাদের থানা থেকে কারাপরোয়ানা দিয়ে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, গত বেশ কয়েকদিন ধরে উপজেলার বিভিন্ন সড়ক ছাড়াও মহাসড়কে যানবাহন আটকিয়ে শ্রমিক সংগঠনের পরিচয় দিয়ে দোদারছে চাঁদা তোলা হচ্ছিল। এ ঘটনায় যানবাহনের চালক ও মালিকরা প্রতিবাদ করে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে লিখিতভাবে জানিয়ে এর প্রতিকার দাবি করেন। এরই প্রেক্ষিতে ভ্রাম্যামাণ আদালতে অর্থদণ্ড দিয়ে আর চাঁদা না উঠানোর নির্দেশনা দেওয়া হয়। এরপরও প্রকাশ্যে চাঁদা তোলা অব্যাহত থাকে। 

আজ মঙ্গলবার অভিযানে নামেন ইউএনও জাকির হোসেন। তিনি ঘটনার সত্যতা পেয়ে পুলিশের সহযোগিতায় হাতেনাতে ধরে ফেলেন শরিফ মিয়া (২৮) ও তাজুল ইসলাম (২২) নামের দুই চাঁদাবাজকে। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালতে তাদের ১৫ দিন করে বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়।



সাতদিনের সেরা