kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৯ শ্রাবণ ১৪২৮। ৩ আগস্ট ২০২১। ২৩ জিলহজ ১৪৪২

কেরানীগঞ্জে ছয় ঘণ্টার ব্যবধানে মিলল দুই লাশ

কেরানীগঞ্জ (ঢাকা) প্রতিনিধি   

১৪ জুন, ২০২১ ০৫:০৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কেরানীগঞ্জে ছয় ঘণ্টার ব্যবধানে মিলল দুই লাশ

প্রতীকী ছবি

ঢাকার দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ আইন্তা এলকা থেকে ছয় ঘণ্টার ব্যবধানে দুই লাশ উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ। শনিবার (১২ জুন) দিবাগত রাতে এই লাশ দুটি উদ্ধার করা হয়। এদের মধ্যে অজ্ঞাতনামা কিশোর (১৮) ও রোকশানা (৪০) নামে এক গহবধূর লাশ রয়েছে। 

পুলিশ লাশ দুটি উদ্ধার করে সুরতহাল রিপোর্টের পর ময়না তদন্তে শেষে স্যার সলিমুল্লাহ মেডিক্যাল কলেজ মিটফোর্ড হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। এদিকে গৃহবধূর স্বজনদের অভিযোগ স্বামীর নির্যাতন মারা যায় রোকশানা। এ ঘটনায় পুলিশ রোকশানার স্বামীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে।

দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক মো. জালাল জানান, শনিবার রাত ১১টার দিকে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানাধীন আইন্তা সারিঘাট এলাকায় খাল থেকে ওই কিশোরের ভাসমান লাশটি উদ্ধার করা হয়। নিহতের পরনে ছিল জিন্স প্যান্ট। শরীরে কোনো আঘাতের চিহ্ন পরিলক্ষিত হয়নি। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে গোসল করতে নেমে ছেলেটি ডুবে মারা যেতে পারে।

অপরদিকে রোকসানা (৪০) নামে এক গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। রবিবার (১৩ জুন) ভোর ৫টায় দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানাধীন আইন্তা পূর্ব পাড়া এলাকা থেকে পুলিশ ওই নারীর লাশ উদ্ধার করে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ নিহতের স্বামী মাসুদকে আটক করেছে।

নিহতের ছোট ভাই মো. জালাল বলেন, প্রায় ২৫ বছর আগে আমার বোনের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই আমার বোনকে তার স্বামী নির্যাতন করত। তার স্বামী মাসুদ একজন চিহ্নিত মাদকসেবী। গত পরশু আমার বোনকে সে ও তার মা সাজেদা মারধর করেছে। মারধরের ধকল সইতে না পেরে আমার বোন মারা গেছে। ঘটনাটি ধামাচাপা দিতে তারা তড়িঘড়ি করে লাশ দাফনের কাজ শেষ করতে চেয়েছিল। তবে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে নিয়ে গেলে তারা আর তা করতে পারেনি।

দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকতা আবুল কালাম আজাদ বলেন, লাশ দুটি উদ্ধারের পর ময়না তদন্তের জন্য হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। তবে নিহত রোকশানার পরিবারের বক্তব্য শুনে সন্দেহ হওয়ায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিহতের স্বামী মাসুদকে আটক করা হয়েছে। ময়না তদন্তের প্রতিবেদন এলে নিহতের সঠিক কারণ জানা যাবে। এ ঘটনায় থানায় পৃথক দুটি মামলা হয়েছে।



সাতদিনের সেরা