kalerkantho

শনিবার । ১৬ শ্রাবণ ১৪২৮। ৩১ জুলাই ২০২১। ২০ জিলহজ ১৪৪২

টেকনাফে নাফনদে ভাসছিল নারী ও দুই শিশুর মৃতদেহ

টেকনাফ (কক্সবাজার) প্রতিনিধি    

১২ জুন, ২০২১ ১৬:৪৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



টেকনাফে নাফনদে ভাসছিল নারী ও দুই শিশুর মৃতদেহ

কক্সবাজারের টেকনাফে নাফনদে ভাসমান অবস্থায় একজন নারী ও দুই শিশুর মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। আজ সকাল ১০টার দিকে উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের মৌলভীবাজার সংলগ্ন নাফনদ থেকে মৃতদেহ তিনটি উদ্ধার করা হয়। পুলিশের ভাষ্য, উদ্ধার নারীর আনুমানিক বয়স ৩৫ বছর এবং দুই শিশুর বয়স যথাক্রমে পাঁচ ও তিন বছর।

টেকনাফ মডেল থানার ওসি হাফিজুর রহমান বলেন, সকাল সাড়ে ৮টার দিকে নাফনদে তিনজনের মৃতদেহ ভাসতে দেখে স্থানীয় লোকজন পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশের একটি টিম ঘটনাস্থলে পৌঁছে স্থানীয়দের সহযোগিতায় তিনজনের মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করে।

তিনি আরো বলেন, মৃত নারীর সঙ্গে থাকা ব্যাগে কাগজপত্র ও ইউএনএইচসিআর প্রদত্ত একটি রোহিঙ্গা পরিচয়পত্র পাওয়া যায়। ওই পরিচয়পত্রের ভিত্তিতে ধারণা করা হচ্ছে তারা উখিয়ার বালুখালী ১১ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বাসিন্দা। দুই শিশু সন্তান ও নারী সম্পর্কে মা-সন্তান হতে পারে। তবে কীভাবে তাদের মৃত্যু হয়েছে তা জানা যায়নি।

মৌলভীবাজারের বাসিন্দা ইমান হোসেন বলেন, রোহিঙ্গা ক্যাম্পের অনেক রোহিঙ্গা এখন নাফনদ পাড়ি দিয়ে মিয়ানমার থেকে আসা যাওয়া করছেন। উদ্ধার হওয়া মৃত রোহিঙ্গারাও হয়তো এভাবে চলাচল করতে গিয়ে দুর্ঘটনায় মারা গেছেন।

হ্নীলা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান রাশেদ মাহমুদ আলী বলেন, নাফনদে ভাসমান মৃতদেহ দেখে পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ এসে দুই শিশু ও একজন নারীর মৃতদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। তারা সম্ভবত নৌকা ডুবির ঘটনায় মারা গেছে। তবে আমাদের প্রশ্ন হচ্ছে, নাফনদে দীর্ঘদিন মাছ ধরা বন্ধ রয়েছে তাহলে রোহিঙ্গা পারাপারে নৌকা আসে কোত্থেকে?



সাতদিনের সেরা