kalerkantho

শনিবার । ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮। ১২ জুন ২০২১। ৩০ শাওয়াল ১৪৪২

বিয়ের ৫ দিন পর স্বামী নিরুদ্দেশ, বিষণ্নতায় স্ত্রীর আত্মহনন!

সীতাকুণ্ড (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি   

২ জুন, ২০২১ ২১:১৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বিয়ের ৫ দিন পর স্বামী নিরুদ্দেশ, বিষণ্নতায় স্ত্রীর আত্মহনন!

প্রতীকী ছবি।

প্রথম স্বামীর সঙ্গে বনিবনা না হওয়ায় বিয়ের দুই বছরের মধ্যেই বিচ্ছেদ হয় কৃষ্ণা দাশের (১৯)। গত দুই মাস আগে আবারও বিয়ে হয় তার। কিন্তু এবার বিয়ের ৪-৫ দিন পরেই নিরুদ্দেশ হয়ে যান স্বামী শুভ পাল (২৬)। এতেই চরম মানসিক অবসাদে ভুগতে থাকেন তিনি। একপর্যায়ে গতকাল মঙ্গলবার রাতে বাড়ির লোকের অগোচরে নিজ ঘরে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন তিনি। চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডের সোনাইছড়ি ইউনিয়নের শীতলপুর বগুলাবাজার এলাকার শীলপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে।

কৃষ্ণা ওই এলাকার পরিমল দাশের মেয়ে। এ ঘটনায় নিহতের ভাই বাদী হয়ে থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছেন।

জানা যায়, পরিমল দাশের মেয়ে কৃষ্ণার প্রথম বিয়ে হয় ২০১৯ সালে। সেখানে স্বামীর সঙ্গে মিল না হওয়ায় তিনি বাবার বাড়িতে ফিরে আসেন। এখানে গত দুই মাস আগে একই এলাকার বাসিন্দা শুভ পালের সঙ্গে তার দ্বিতীয় বিয়ে হয়। শুভর মা-বাবা কেউ নেই। তাই স্ত্রীকে নিয়ে একটি ভাড়া বাসায় উঠবে বলে জানায় শুভ। কিন্তু বিয়ের ৪-৫ দিন পরেই কাউকে কিছু না বলে নিরুদ্দেশ হয়ে যান শুভ। সেই থেকে স্বামীর কোনো খোঁজ না পেয়ে চরম হতাশায় ভুগছিলেন কৃষ্ণা। মানসিক অবসাদের একপর্যায়ে গতকাল মঙ্গলবার রাতে তার মা বাজারে থাকার সুযোগে নিজ ঘরে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেন তিনি। 

পরিবারের লোকজন তাকে চমেক হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। কিন্তু এ মৃত্যুতে পরিবারের কারো কোনো অভিযোগ নেই জানিয়ে তার ভাই বাসু চন্দ্র দাশ সীতাকুণ্ড থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন।

সীতাকুণ্ড থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবুল কালাম আজাদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, লাশ ময়নাতদন্ত করে তাদের পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। এ বিষয়ে অপমৃত্যু মামলা দায়ের হয়েছে।



সাতদিনের সেরা