kalerkantho

সোমবার । ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮। ১৪ জুন ২০২১। ২ জিলকদ ১৪৪২

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় : অনেক প্রাপ্তি নিয়ে ১৬ বছরে পদার্পণ

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

২৮ মে, ২০২১ ১৫:১৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় : অনেক প্রাপ্তি নিয়ে ১৬ বছরে পদার্পণ

প্রত্যাশা, প্রাপ্তি, পূর্ণতা, অপূর্ণতায় ১৫ বছর পেরিয়ে ১৬ বছরে পা দিল কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়। ২০০৬ সালের ২৮ মে দেশের ২৬তম পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে যাত্রা শুরু করে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়।

উচু নিচু লাল মাটির পাহাড় আর সবুজের সমারোহে সৌন্দর্যমন্ডিত অপরুপ এক ক্যাম্পাস কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়। ২০০৬ সালে ৫০ একর জমির উপর ৩০০ জন শিক্ষার্থী আর ১৫ জন শিক্ষক নিয়ে প্রতিষ্ঠিত হয় বিশ্ববিদ্যালয়টি। বর্তমানে ছয়টি অনুষদের ১৯টি বিভাগে প্রায় সাত হাজার শিক্ষার্থী অধ্যয়ন করছে। শিক্ষার্থীদের মাঝে জ্ঞান বিতরণ করছেন আড়াই'শর অধিক শিক্ষক।

বিশ্ববিদ্যালয়টিতে শিক্ষার্থীদের থাকার জন্য রয়েছে চারটি আবাসিক হল। এ ছাড়াও আরো একটি হল নির্মাণ ও একটি হলের সম্প্রসারণ কাজ চলছে। শিক্ষকদের জন্য একটি ডরমেটরি আছে। শিক্ষার্থীদের পরিবহনের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের আছে নিজস্ব পাঁচটি বাস। শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের জন্য বাস, মিনিবাস ও মাইক্রোবাসের ব্যবস্থা রয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ে বর্তমানে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় অধিকতর উন্নয়ন প্রকল্প’র অধীনে ১৬৫৫ কোটি ৫৫ লক্ষ টাকার উন্নয়ন কাজ চলছে। এই প্রকল্পের প্রকল্পের আওতায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটক নির্মিত হচ্ছে।

অবকাঠামোগত দিক ছাড়াও সাংস্কৃতিক অঙ্গণে নিজেদের অর্জন ও স্বকীয় কর্মকাণ্ডে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন সংগঠনগুলো এগিয়ে যাচ্ছে। ডিবেটিং ক্লাব, সায়েন্স ক্লাব, বিএনসিসি, সাংবাদিক সমিতি, থিয়েটার, প্রতিবর্তন, প্লাটফর্ম, আইটি সোসাইটিসহ বেশ কয়েকটি সংগঠন বিশ্ববিদ্যালয়ে তাদের কার্যক্রম চালাচ্ছে।

বর্তমানে ষষ্ঠ উপাচার্য হিসেবে অধ্যাপক ড. এমরান কবির চৌধুরী দায়িত্ব পালন করছেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে উপাচার্য অধ্যাপক এমরান কবির চৌধুরী বলেন, ১৬তম বছর বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য সোনালী বছর হয়ে থাকবে। বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের সকলের প্রচেষ্টায় ইনশাআল্লাহ আমরা একটি সোনালী ভবিষ্যতের দিকে যাচ্ছি। যেখানে আমরা আগামী ৫০ বছরের পরিকল্পনা করছি। মেগা প্রকল্প থেকে ভূমি অধিগ্রহণের জন্য ৫০০ কোটি টাকা দিয়ে দিয়েছি। বিভিন্ন ভবনগুলোর নকশা তৈরির কাজ চলছে।

বিশ্ববিদ্যালয় দিবস উদযাপন নিয়ে তিনি বলেন, করোনা পরিস্থিতির কারণে ৩০ মে পর্যন্ত বিধিনিষেধ থাকায় আগামী ৩১ মে দিবসটি উদযাপন করা হবে বলে জানিয়েছেন উপাচার্য। তিনি বলেন, সোমবার আমরা র‌্যালি করবো, আলোচনা সভা ও কেক কাটবো। যথাযথ মর্যাদায় আমরা দিবসটি উদযাপন করবো।



সাতদিনের সেরা