kalerkantho

রবিবার । ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮। ১৩ জুন ২০২১। ১ জিলকদ ১৪৪২

বাংলাবাজার-শিমুলিয়া রুটে লঞ্চ-ফেরি চলাচল শুরু

অনলাইন ডেস্ক   

২৮ মে, ২০২১ ১১:২৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বাংলাবাজার-শিমুলিয়া রুটে লঞ্চ-ফেরি চলাচল শুরু

ফাইল ছবি।

টানা তিনদিন বন্ধ থাকার পর শুক্রবার (২৮ মে) সকাল ১০টা থেকে বাংলাবাজার-শিমুলিয়া নৌরুটে লঞ্চ চলাচল শুরু করেছে। এর আগে ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের প্রভাবে গত ২৫ মে বিকেল থেকে বন্ধ ছিল লঞ্চ চলাচল।

লঞ্চ চলাচল শুরুর বিষয়টি নিশ্চিত করে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্পোরেশনের (বিআইডব্লিউটিসি) শিমুলিয়া লঞ্চঘাট পরিদর্শক মো. সোলেমান জানিয়েছেন, বৈরি আবহাওয়া কেটে যাওয়ায় নৌরুটে আবারও লঞ্চ চলাচল শুরু হয়েছে। বর্তমানে শিমুলিয়া-বাংলাবাজার রুটে ৮৫টি লঞ্চ সচল রয়েছে। নিয়ম মেনে শিমুলিয়া থেকে বাংলাবাজার ও বাংলাবাজার থেকে শিমুলিয়াঘাটে আসা যাওয়া করছে।

এর আগে দু’দিন বন্ধ থাকার পর ফেরি চলাচলও স্বাভাবিক হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে কেটাইপ ফেরি কুঞ্জলতা এবং দশটায় ক্যামেলিয়া বাংলাবাজার ঘাট থেকে শিমুলিয়ার উদ্দেশে ছেড়ে যাওয়ার মধ্য দিয়ে সীমিত পরিসরে ফেরি চলাচল শুরু হয়। শুক্রবার সকাল থেকে রো রো, ডাম্প, কেটাইপ ও মিডিয়ামসহ সব ফেরি চলাচল করছে বলেও বিআইডব্লিউটিসির বাংলাবাজার ঘাট সূত্রে জানা গেছে।

সূত্রটি আরও জানায়, শুক্রবার ভোর থেকে লঞ্চ ও ফেরি চলাচল স্বাভাবিক হওয়ায় নৌরুট দিয়ে যানবাহন ও যাত্রী পারাপার হচ্ছে। দু’দিন বন্ধ থাকার কারণে ঘাটে যাত্রী ও যানবাহনের ভিড় রয়েছে।

বিআইডাব্লিউটিসি শিমুলিয়াঘাটের সহকারী ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) সাফায়েত আহমেদ বলেন, রাতে সীমিত পরিসরে ফেরি চলাচল শুরু করে। নদীর ঢেউ ও ঝড়ো হওয়া কেটে গেছে। বর্তমানে ফেরি চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে। নৌরুটে বহরে থাকা ১৮টি ফেরির মধ্যে ১৪টি ফেরি দিয়ে যাত্রী ও যানবাহন পারাপার করা হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের কারণে পদ্মা নদী উত্তাল থাকায় গত মঙ্গলবার (২৫ মে) রাত থেকে লঞ্চ ও বুধবার (২৬ মে) সকাল থেকে শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌরুটে ফেরি চলাচল বন্ধ ছিল। টানা দুইদিন নৌচলাচল বন্ধ থাকায় পদ্মায় পারাপারের অপেক্ষায় শিমুলিয়াঘাটে যাত্রী ও যানবাহনের চাপ দেখা দেয়।



সাতদিনের সেরা