kalerkantho

শনিবার । ১৬ শ্রাবণ ১৪২৮। ৩১ জুলাই ২০২১। ২০ জিলহজ ১৪৪২

মাদকাসক্তি নিরাময় কেন্দ্রে তরুণকে পিটিয়ে হত্যা

দুই পরিচালকসহ আটক ১৪

যশোর প্রতিনিধি    

২৪ মে, ২০২১ ০৩:৫৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মাদকাসক্তি নিরাময় কেন্দ্রে তরুণকে পিটিয়ে হত্যা

প্রতীকী ছবি

যশোর শহরের রেল রোডে মাদকাসক্তি নিরাময় ও পুনর্বাসন কেন্দ্রে মাহফুজুর রহমান (২০) নামের মাদকাসক্ত এক তরুণকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। তিনি চুয়াডাঙ্গার জীবননগর বাসস্ট্যান্ড এলাকার মনিরুজ্জামানের ছেলে। এ ঘটনায় ওই প্রতিষ্ঠানের দুই পরিচালকসহ ১৪ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

গতকাল রবিবার ১৪ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতপরিচয় আরো কয়েকজনকে আসামি করে যশোর কোতোয়ালি থানায় মামলা করেন মনিরুজ্জামান। তিনি বলেন, ‘মাহফুজ মাদক সেবন করত। চিকিৎসায় যাতে সুস্থ স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসতে পারে সে উদ্দেশ্যে গত ২৬ এপ্রিল ছেলেকে যশোরের মাদকাসক্তি নিরাময় ও পুনর্বাসন কেন্দ্রে ভর্তি করি। গত শনিবার বিকেলে খবর পাই, তাকে ওই প্রতিষ্ঠানের লোকজন মারধর করে মেরে ফেলেছে। পরে লাশ অজ্ঞাত হিসেবে যশোর জেনারেল হাসপাতালে রেখে ওরা চলে গেছে। আমরা যশোরে এসে মাহফুজের মরদেহ হাসপাতালের মর্গে পাই।’

হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক তন্ময় বিশ্বাস জানান, গত শনিবার দুপুরে মাদক নিরাময় কেন্দ্র থেকে একটি মরদেহ জরুরি বিভাগে আনা হয়। লাশ নিয়ে আসা ব্যক্তিরা নাম-ঠিকানা লিপিবদ্ধ না করেই কৌশলে হাসপাতাল ত্যাগ করে।

যশোর কোতোয়ালি থানার এসআই শংকর বিশ্বাস বলেন, সুরতহাল রিপোর্ট করার সময় মৃতের শরীরের বিভিন্ন স্থানে বেশ কিছু আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে।

থানার ওসি তাজুল ইসলাম বলেন, ঘটনা জানার পর রাতে প্রতিষ্ঠানটির সিসিটিভি ফুটেজ দেখে জানা যায়, মাহফুজকে মারধর করে হত্যা করা হয়েছে। মারধরের এক পর্যায়ে ওই তরুণ মলত্যাগ করে ফেলে। তখন ওকে দিয়েই আবার ওই মল পরিষ্কার করানো হয়।

ওসি জানান, সিসিটিভি ফুটেজে প্রমাণ মেলার পর পুলিশের কয়েকটি টিম শনিবার রাতভর অভিযান চালিয়ে ১৪ জনকে আটক করেছে। তাঁরা হলেন প্রতিষ্ঠানটির পরিচালক পূর্ব বারান্দিপাড়ার বাসিন্দা আবুল কাসেমের ছেলে মাসুম করিম ও অপর পরিচালক বারান্দিপাড়া বটতলা এলাকার আনোয়ার হোসেনের ছেলে আশরাফুল কবির, রেজাউল করিম, ওহেদুজ্জামান, ওহিদুল ইসলাম, আল শাহরিয়া, শাহিন, ইসমাইল হোসেন, শরিফুল ইসলাম, এ এস এম সাগর আলী, অহেদুজ্জামান সাগর, নুর ইসলাম, হৃদয় ওরফে ফরহাদ ও আরিফুজ্জামান।



সাতদিনের সেরা