kalerkantho

সোমবার । ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮। ১৪ জুন ২০২১। ২ জিলকদ ১৪৪২

তিন সন্তান নিয়ে পিতা-মাতার দুর্বিসহ জীবন

আত্রাই-রাণীনগর (নওগাঁ) প্রতিনিধি   

২২ মে, ২০২১ ১৯:১২ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



তিন সন্তান নিয়ে পিতা-মাতার দুর্বিসহ জীবন

নওগাঁর আত্রাই উপজেলার ব্রজপুর গ্রামের লবা প্রামাণিক মানসিক ভারসাম্যহীন তিন ছেলে-মেয়ে নিয়ে দুর্বিষহ জীবনযাপন করছেন। দুমঠো ভাত যোগানোই যখন তার জন্য কষ্টকর ঠিক সে সময় অভিভাবক হিসেবে সন্তানদের চিকিৎসার কথা ভাবতেই পারছেন না তারা।

মানসিক ভারসাম্যহীনতার কারণে নিরুপায় হয়ে লবা প্রামাণিক দম্পতি তাদের অসুস্থ ছেলে-মেয়েদের প্রায় দশ বছর ধরে শিকলবন্দি করে রেখেছেন। ৫ সন্তানের মধ্যে এক ছেলে পাগল হওয়ায় বাপ-দাদার পৈত্রিক ভিটা ছেড়ে স্ত্রী সন্তান নিয়ে অন্য জায়গায় বসবাস করে। আরেক মেয়েকে বিয়ে দেওয়ার পর স্বামী সংসার নিয়ে শ্বশুর বাড়িতে আছে। অজানা আতংকের কারণে তার পিতা-মাতার সাথে দেখা করতেও আসে না। উপার্জনহীন অভাবি সংসারে বৃদ্ধ বাবা-মা সহায় সম্বল হারিয়ে সময় মতো খেতে দিতে পারেন না অসুস্থ সন্তানদের।

লবা জানান, আমার তিন ছেলে-মেয়ে মানসিক ও শারীরিকভাবে অনেক ছিল। তাদের বয়স ভেদে আমি বিয়ে দিয়েছিলাম। হঠাৎ করে ১০/১২ বছর আগে পর্যায়ক্রমে তারা মানসিক ভারসম্যহীন হয়ে পড়ে। প্রতিবেশীদের পরামর্শে অনেক কষ্টে তাদের চিকিৎসার জন্য পাবনা মানসিক হাসপাতালে ভর্তি করাই। সেখানে চিকিৎসা করে তেমন উন্নতি না হওয়ায় আবার বাসায় নিয়ে আসি। আমার সন্তাদের চিকিৎসার জন্য স্থানীয় সংসদ সদস্যসহ সবার সহযোগিতা চাই।

স্থানীয় আহসানগঞ্জ সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আক্কাছ আলী জানান, একবার প্রতিবন্ধী অফিসে তাদের নাম ঠিকানা পাঠিয়েছিলাম। কোনো সুযোগসুবিধা পেয়েছে কিনা তা বলতে পারব না।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইকতেখারুল ইসলাম জানান, এ উপজেলায় যোগদান করেছি মাত্র চার মাস। বিষয়টি আমি আপনাদের মাধ্যমে জানতে পারলাম। সরেজমিন তদন্ত করে সরকারিভাবে প্রয়োজনীয় সুযোগ-সুবিধা প্রদানের ব্যবস্থা করব।



সাতদিনের সেরা