kalerkantho

শনিবার । ৫ আষাঢ় ১৪২৮। ১৯ জুন ২০২১। ৭ জিলকদ ১৪৪২

তাহিরপুর সীমান্তে যুবকের বিক্ষত লাশ

তাহিরপুর (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি   

২২ মে, ২০২১ ১৪:৩৫ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



তাহিরপুর সীমান্তে যুবকের বিক্ষত লাশ

সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলায় সীমান্তবর্তী এলাকা থেকে জবাই করা এক যুবকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। আজ শনিবার সকালে উপজেলার উত্তর বড়দল ইউনিয়নের শান্তিপুর গ্রামের উত্তরে মাহারাম নদীর তীরের বাদাম খেত থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়।

নিহত যুবকের নাম জাহাঙ্গীর আলম (২৮)। তিনি উপজেলার উত্তর বড়দল ইউনিয়নের উত্তর মাহারাম গ্রামের মোহাম্মদ আলীর ছেলে। জাহাঙ্গীর আলমের ৭ মাসের কন্যা শিশু রয়েছে। গলা কাটা ছাড়াও নিহতের থুতনিতে ধারালো অস্ত্রের একাধিক জখমের চিহ্ন আছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, আজ শনিবার সকালে  সীমান্তবর্তী শান্তিপুর গ্রামের স্থানীয় লোকজন সকালে বাদাম খেতে বাদাম তুলতে যাওয়ার পথে যুবকের জবাই করা লাশ দেখতে পান। এ সময় মাহারাম গ্রামের লোকজন জাহাঙ্গীর আলমকে চিহ্নিত করেন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

নিহত জাহাঙ্গীর আলমের আত্মীয় পার্শ্ববর্তী চাঁনপুর গ্রামের বাসিন্দা শহীদ মিয়া জানান, জাহাঙ্গীর আলমকে কারা কীভাবে খুন করেছে পরিবারের লোকজন কিছু জানেন না। ছেলের খুনের খবর পেয়ে তার মা-বাবা সজ্ঞাহীন হয়ে আছেন। জাহাঙ্গীরের বাবাকে চিকিৎসার জন্য সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

তাহিরপুর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আব্দুল লতিফ তরফদার বলেন, খবর পেয়ে আজ সকালে জাহাঙ্গীর আলমের গলা কাটা লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে শুক্রবার রাতের কোনো এক সময়ে দুর্বৃত্তরা জাহাঙ্গীরকে সীমান্তবর্তী এলাকায় নিয়ে গলা কেটে হত্যা করেছে। লাশ উদ্ধার করে
ময়নাতদন্তের জন্য সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হচ্ছে। 



সাতদিনের সেরা