kalerkantho

রবিবার । ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮। ১৩ জুন ২০২১। ১ জিলকদ ১৪৪২

বেনাপোল-বাগআঁচড়া জিসি-গোগা বাজার

১০ কিলোমিটার সড়কের কাজ চলছে, সুফল পাবে ৩ লক্ষাধিক মানুষ

বেনাপোল প্রতিনিধি   

২২ মে, ২০২১ ১২:৪৭ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



এলজিইডি শার্শার তত্ত্বাবধানে এগিয়ে চলেছে বেনাপোল হতে বাগআঁচড়া জিসি ভায়া গোগা বাজার সড়কের ডাবল লেনের উন্নয়ন কাজ। বর্তমানে বেনাপোল থেকে গোগা বাজারের ১০ কিলোমিটার সড়কের কাজ চলছে। এই প্রকল্প সম্পন্ন হওয়ার পর গোগা বাজার থেকে বাগআঁচড়া বাজার পর্যন্ত আরো ১০ কিলোমিটার সড়কের কাজ নতুন প্রকল্প নিয়ে সম্পন্ন করা হবে। 

স্থানীয় প্রকৌশল দপ্তরের সার্বিক তত্ত্বাবধানে নির্মিত হচ্ছে বেনাপোল-বাগআঁচড়া জিসি গোগা সড়ক। ডাবল লেনের সড়কটি নির্মাণে ব্যয় হবে প্রায় ১৫ কোটি টাকা। ২০২০ সালের ৩০ আগস্ট থেকে এ সড়ক নির্মাণের কাজ দ্রুত এগিয়ে চলেছে। আগামী ২০২২ সালের ২৫ ফেব্রুয়ারিতে নির্মাণকাজ সম্পন্ন হওয়ার কথা রয়েছে। তিনটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান গ্রুপ-ভিত্তিক কাজ করছে। 

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, বেনাপোল স্থলবন্দর, বারোপোতা বাজার, পুটখালী বাজার, গোগা বাজার, খলসি বাজার, আমলাই বাজার, বসতপুর বাজার ও বৃহত্তর সাতমাইল পশুহাট, বাগআঁচড়া বাজারের সাথে স্থায়ী যোগাযোগ ব্যবস্থা স্থাপিত হবে। একই সাথে ৩৬টি স্কুল, কলেজ, মাদরাসা প্রতিষ্ঠান ৭টি মসজিদ, ১৬টি করাত কল, বিভিন্ন ব্যাংকের ২০টি শাখাসহ এজেন্ট ব্যাংক সুফলভোগী হবে। সাধারণ মানুষের দোরগোড়ায় যাতে সরকারি সেবা বাধাহীনভাবে পৌঁছতে পারে তার জন্যই সরকার বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। এলাকার মানুষের জীবনমানের উন্নয়ন ঘটাতে হলে গ্রামীণ জনপদকে ঢেলে সাজাতে হবে এবং প্রতিটি গ্রামীণ সড়ক উপজেলা ও জাতীয় সড়কের সাথে সংযোগ স্থাপন করতে হবে, তবেই সাধারণ মানুষের সার্বিকভাবে মানোন্নয়ন হবে।

সড়কটি নির্মাণের ফলে মানুষের প্রত্যাশিত আশা পূরণের কথা জানালেন বেনাপোলের পুটখালি ইউপি চেয়ারম্যান মাস্টার হাদিউজ্জামান। তিনি বলেন, বর্তমান সরকারের গ্রামকে শহরে পরিণত করার যে অঙ্গীকার তারই অংশ এটা। এ সড়ক নির্মাণ হলে বেনাপোল পৌরসভা, বেনাপোল ইউনিয়ন, বাগআঁচড়া ইউনিয়ন, গোগা ইউনিয়ন, পুটখালি ইউনিয়ন পরিষদের ৩ লক্ষাধিক মানুষ এর সুফল পাবেন এবং সাধারণ মানুষের উৎপাদিত পণ্যসামগ্রী ন্যায্য মূল্যে বাজারজাত করে ব্যাপক লাভবান হবেন।

উপজেলা প্রকৌশলী এমএম মামুন হাসান জানান, মানসম্পন্ন এবং টেকসই উন্নয়নের লক্ষে এলজিইডির কর্মকর্তারা সার্বক্ষণিক সড়ক নির্মাণকাজের মনিটরিং করছেন। 

শার্শা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল হক মঞ্জু জানান, প্রায় ১০ কিলোমিটার সড়ক নির্মাণ শেষে সুফল পাবেন এলাকার ৩ লক্ষাধিক মানুষ। বর্তমান সরকারের যে রূপকল্প গ্রামকে শহরে পরিণত করতে হবে, তারই বাস্তবায়ন ঘটছে। আর স্থানীয় সংসদ সদস্য শেখ আফিল উদ্দিনের প্রচেষ্টায় সড়কটি নির্মাণ হচ্ছে।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মীর আলিফ রেজা জানান, সড়কটি নির্মাণ সম্পন্ন হলে সাধারণ মানুষের জীবনমানের উন্নয়ন এবং প্রত্যাশা পূরণ হবে। 



সাতদিনের সেরা